আলোকের এই ঝর্নাধারায় ধুইয়ে দাও -আপনাকে এই লুকিয়ে-রাখা ধুলার ঢাকা ধুইয়ে দাও-যে জন আমার মাঝে জড়িয়ে আছে ঘুমের জালে..আজ এই সকালে ধীরে ধীরে তার কপালে..এই অরুণ আলোর সোনার-কাঠি ছুঁইয়ে দাও..আমার পরান-বীণায় ঘুমিয়ে আছে অমৃতগান-তার নাইকো বাণী নাইকো ছন্দ নাইকো তান..তারে আনন্দের এই জাগরণী ছুঁইয়ে দাও কোথায় কবে সে সব হারিয়ে গেলো.. ~ alokrekha আলোক রেখা
1) অতি দ্রুত বুঝতে চেষ্টা করো না, কারণ তাতে অনেক ভুল থেকে যায় -এডওয়ার্ড হল । 2) অবসর জীবন এবং অলসতাময় জীবন দুটো পৃথক জিনিস – বেনজামিন ফ্রাঙ্কলিন । 3) অভাব অভিযোগ এমন একটি সমস্যা যা অন্যের কাছে না বলাই ভালো – পিথাগোরাস । 4) আমাকে একটি শিক্ষিত মা দাও , আমি তোমাকে শিক্ষিত জাতি দেব- নেপোলিয়ন বোনাপার্ট । 5) আমরা জীবন থেকে শিক্ষা গ্রহন করি না বলে আমাদের শিক্ষা পরিপূর্ণ হয় না – শিলার । 6) উপার্জনের চেয়ে বিতরণের মাঝেই বেশী সুখ নিহিত – ষ্টিনা। 7) একজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি আরেকজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি কে জাগ্রত করতে পারে না- শেখ সাদী । 8) একজন দরিদ্র লোক যত বেশী নিশ্চিত , একজন রাজা তত বেশী উদ্বিগ্ন – জন মেরিটন। 9) একজন মহান ব্যাক্তির মতত্ব বোঝা যায় ছোট ব্যাক্তিদের সাথে তার ব্যবহার দেখে – কার্লাইন । 10) একজন মহিলা সুন্দর হওয়ার চেয়ে চরিত্রবান হওয়া বেশী প্রয়োজন – লং ফেলো। 11) কাজকে ভালবাসলে কাজের মধ্যে আনন্দ পাওয়া যায় – আলফ্রেড মার্শা
  • Pages

    লেখনীর সূত্রপাত শুরু এখান থেকে

    কোথায় কবে সে সব হারিয়ে গেলো..


    কোথায় কবে সে সব হারিয়ে গেলো

    সানজিদা রুমি

    জানি না, জানি না কোথায় কবে সে সব হারিয়ে গেলো.....
    পলকে খণ্ডিত বিচ্ছিন্ন স্বপ্ন অভিসিঁচন অবারিত অবগাহন জলে-
    পুলক ছিল হাতের মুঠোয়ে ঢেউয়ের মত বালুকা বেলায় মিলিয়ে গেল।
    সে গলির মোড় যেথায় আমার জীবন ছিল ,আজ আমি সেখানে বিসৃত
    মনের বসত-এ  কারো বাস ছিলো শুন্য সে ঘর এখন  পতিত।
    যাবার বেলায় সব কিছূ  লুট করে নিয়ে গেল সেজন
    রইলাম পড়ে আমি একা, শুন্য ভিটা, শুন্য দেহজ মন।
    সকল নিয়ন্ত্রণ জলাঞ্জলি দিয়ে পড়ে ছিলাম কেবল সেই জনের আশায়
    অবিচ্ছেদ আকাঙ্ক্ষার ভেজা রাতের চাদর গায়ে কেবলি জল্পনায়,
    কাঁদা  জলে গড়ে প্রতিমা বিমূর্ত আঙ্গুলের  নিপুণ সোহাগে
    আসন্ন বহ্নি ঝড় চোখে-, তপ্ত নিঃশ্বাস বুকে  পরম আবেগে
    কেমন বৈদ্যুতিক টানে আধো ঘুমে  ওষ্ঠপুটে চুম্বন গাঁথা
    সঙ্গোপন সঙ্গমে কাঁদামাটী দেহের আত্ম সমর্পণ।


    চিকণ আভার পিদিমের সাথে জ্বলে জেগে থাকা মানব শরীর
    কপাট পেরিয়ে ভেসে আসে অবাধ্য তাড়নাজাত শীৎকারের   সুর
    ওটা ছিলো আমাদের জীবন যেন মৃত্তিকার অবারিত অবগাহন জলে
    জানি না, জানি না কোথায় সে সব হারিয়ে গেলো।
    সকল নিয়ন্ত্রণ জলাঞ্জলি দিয়ে পড়ে ছিলাম কেবল সেই জনের আশায়
    অবিচ্ছেদ আকাঙ্ক্ষার ভেজা রাতের চাদর গায়ে কেবলি জল্পনায়,
    কাঁদা  জলে গড়ে প্রতিমা বিমূর্ত আঙ্গুলের  নিপুণ সোহাগে
    আসন্ন বহ্নি ঝড় চোখে-, তপ্ত নিঃশ্বাস বুকে  পরম আবেগে
    কেমন বৈদ্যুতিক টানে আধো ঘুমে  ওষ্ঠপুটে গাঁথা চুম্বন
    সঙ্গোপন সঙ্গমে কাঁদামাটী দেহের আত্ম সমর্পণ।


    চিকণ আভার পিদিমের সাথে জ্বলে জেগে থাকা মানব শরীর
    কপাট পেরিয়ে ভেসে আসে অবাধ্য তাড়নাজাত শীৎকারের সুর।
    ওটা ছিলো আমাদের জীবন যেন মৃত্তিকার অবারিত অবগাহন জলে
    সেই সুখ, সেই প্রেম জানি না, জানি না কোথায় হারিয়ে গেলো  ...
    বর্ণিল সাপের শীতল মনের ইচ্ছায়  বড়শির শিকারি মন্ত্র ছলাকলা
    মাছেদের জলকেলি হাওড়ের কলঙ্ক গোপন তোমার দেহলীলা।
    ঘুম ভাঙ্গতেই  দেখি কাঁদে বালিশের পাশে শুয়ে থাকা শোক
    বুকের অলিন্দে এঁটে বসে ছাইরঙা কষ্ট  ঝাপসা  হীম  চোখ।
    হলুদ ঝরা পাতারা বসেছিলো ঠায়, নির্বাক  নির্বিকার
    দেখছিলো পড়ন্ত  সূর্যের বেলা  গাছ হয়ে দাঁড়িয়ে থাকার।
    স্মৃতির পটে সেই সব মুহূর্ত  সেই সব ক্ষন
    ক্ষতবিক্ষত বিরহ বিধুর  কি ভীষণ  কঠিন দিন ।
    ওটা ছিলো আমাদের জীবন যেন মৃত্তিকার অবারিত অবগাহন জলে
    সেই সুখ, সেই প্রেম জানি না, জানি না কোথায় কবে হারিয়ে গেলো…….

    সানজিদা রুমি কর্তৃক গ্রথিত http://www.alokrekha.com

    8 comments:

    1. সানজিদা রুমীর সব লেখায় আমরা পড়ি -লেখক হিসাবে আগেও বহুবার প্রশংসিত হয়েছেন। কিন্তু কবিতা যে এত ভালো লেখেন তা জানা ছিল না। "জানি না, জানি না কোথায় কবে সে সব হারিয়ে গেলো" কথা এতো এতো সত্য। যখন মুহূর্তগুলো হারায় ঢেউয়ের মত মিলিয়ে যায় বালুকা বেলায় -সব বিস্মৃত হয় শুধু কোস্ট ছাড়া। দারুন সহজ ভাবে এই কবিতায় উঠে এসেছে । অনেক সাধুবাদ সানজিদা রুমি। ভালো থাকুন্! ভালো লিখুন। #পাঠক #আলোকরেখা

      ReplyDelete
    2. সানজিদা রুমীর সব লেখায় আমরা পড়ি -লেখক হিসাবে আগেও বহুবার প্রশংসিত হয়েছেন। কিন্তু কবিতা যে এত ভালো লেখেন তা জানা ছিল না। "জানি না, জানি না কোথায় কবে সে সব হারিয়ে গেলো" কথা এতো এতো সত্য। যখন মুহূর্তগুলো হারায় ঢেউয়ের মত মিলিয়ে যায় বালুকা বেলায় -সব বিস্মৃত হয় শুধু কোস্ট ছাড়া। দারুন সহজ ভাবে এই কবিতায় উঠে এসেছে । অনেক সাধুবাদ সানজিদা রুমি। ভালো থাকুন্! ভালো লিখুন।

      ReplyDelete
    3. সানজিদা রুমীর লেখা আমার সব সময় অনেক প্রিয়। ওনার "সংসার সমুদ্র" কবিতার বইয়ের প্রতিটা কবিতা আমাকে কাঁদিয়েছিল। ওনার সব লেখা সত্য জীবনের কাছাকাছি। বিমূর্ত নয়। তাই তা এতো জনপ্রিয়। অনেক ভালোবাসা!

      ReplyDelete
    4. আমারও সানজিদা রুমীর লেখা অনেক প্রিয়। ওনার শেরেবাংলা স্বর্ণ পদক প্রাপ্ত "সংসার সমুদ্র" কবিতার বইয়ের প্রতিটা কবিতা অনেক হৃদয়গাহী। আমার এই বইটির উপর সব্যসাচী লেখক ও কবি সৈয়দ শামসুল হকের রিভিউ পড়ার সৌভাগ্য হয়েছিল--- "এক কথায় দারুন! জীবনের কথা -ভাষা বা শব্দের খেলা নয় জীবনের প্রতিচ্ছবি " ! সত্য জীবনের কাছাকাছি সানজিদা রুমীর লেখা। বিমূর্ত নয়। অনেক শুভেচ্ছা।

      ReplyDelete
    5. Pradip Kumar , JalpaiguriMay 16, 2017 at 9:48 PM

      কোথায় কবে সে সব হারিয়ে গেল , অসাধারন লেখা , সানজিদা রুমিকে অভিনন্দন

      ReplyDelete
    6. কোথায় কবে সে সব হারিয়ে গেল , আমাকে বড্ড ভাবিয়ে তুলেছে। খুব ইমোশনাল হয়ে ড যাচ্ছি

      ReplyDelete
    7. আলোকরেখা ইদানিং বেশ জমে উঠেছে , খুব ভালো ভালো লেখা আসছে , আশা করি এমনটাই চলবে

      ReplyDelete
    8. সানজিদা রুমীর লেখা আমার সব সময় অনেক প্রিয়।কোথায় কবে সে সব হারিয়ে গেল , সহজ ভাব কবিতা অসাধারন লেখা- সানজিদা রুমিকে অভিনন্দন .

      ReplyDelete

    অনেক অনেক ধন্যবাদ