আলোকের এই ঝর্নাধারায় ধুইয়ে দাও -আপনাকে এই লুকিয়ে-রাখা ধুলার ঢাকা ধুইয়ে দাও-যে জন আমার মাঝে জড়িয়ে আছে ঘুমের জালে..আজ এই সকালে ধীরে ধীরে তার কপালে..এই অরুণ আলোর সোনার-কাঠি ছুঁইয়ে দাও..আমার পরান-বীণায় ঘুমিয়ে আছে অমৃতগান-তার নাইকো বাণী নাইকো ছন্দ নাইকো তান..তারে আনন্দের এই জাগরণী ছুঁইয়ে দাও পরিচয়---------------- রোকসানা লেইস ~ alokrekha আলোক রেখা
1) অতি দ্রুত বুঝতে চেষ্টা করো না, কারণ তাতে অনেক ভুল থেকে যায় -এডওয়ার্ড হল । 2) অবসর জীবন এবং অলসতাময় জীবন দুটো পৃথক জিনিস – বেনজামিন ফ্রাঙ্কলিন । 3) অভাব অভিযোগ এমন একটি সমস্যা যা অন্যের কাছে না বলাই ভালো – পিথাগোরাস । 4) আমাকে একটি শিক্ষিত মা দাও , আমি তোমাকে শিক্ষিত জাতি দেব- নেপোলিয়ন বোনাপার্ট । 5) আমরা জীবন থেকে শিক্ষা গ্রহন করি না বলে আমাদের শিক্ষা পরিপূর্ণ হয় না – শিলার । 6) উপার্জনের চেয়ে বিতরণের মাঝেই বেশী সুখ নিহিত – ষ্টিনা। 7) একজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি আরেকজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি কে জাগ্রত করতে পারে না- শেখ সাদী । 8) একজন দরিদ্র লোক যত বেশী নিশ্চিত , একজন রাজা তত বেশী উদ্বিগ্ন – জন মেরিটন। 9) একজন মহান ব্যাক্তির মতত্ব বোঝা যায় ছোট ব্যাক্তিদের সাথে তার ব্যবহার দেখে – কার্লাইন । 10) একজন মহিলা সুন্দর হওয়ার চেয়ে চরিত্রবান হওয়া বেশী প্রয়োজন – লং ফেলো। 11) কাজকে ভালবাসলে কাজের মধ্যে আনন্দ পাওয়া যায় – আলফ্রেড মার্শা
  • Pages

    লেখনীর সূত্রপাত শুরু এখান থেকে

    পরিচয়---------------- রোকসানা লেইস


    পরিচয়

    রোকসানা লেইস

    নদীকে বলেছিলাম আমাকে মনে রাখতে। অনেকদিন পরে দেখা হলো ।

    নদী তখন বয়ে যাচ্ছে আপন মনে।

    আমার কথা মনে আছে, নদীকে ডেকে জানতে চাইলাম।

    চিনি না.. বলে চলে গেল হেসে, গেয়ে আপন মনে।

    মন খারাপের বাঁশি বাজার আগেই হেসে উঠলাম।

    প্রবীণা বার্ধক্যের আঁচলে বাঁধা এ নদী, কেমনে চিনবে ।


    খলবলে যৌবনে যার সাথে কাটিয়েছি বেলা, সে তো চলে গেছে বহু দূরে।

    প্রান্তিক পথ ঘিরে ছিল অনেক দূর।

    তার সাথে হেঁটে হেঁটে শেষে বসে পরলাম পাহাড়ের কুলে।

    ক্লান্তি ভেঙ্গে জেগে দেখি পাখিরা ঘিরে আছে আমায়।

    সবুজ টিয়ে সযত্নে জানতে চাইল কি নাম তোমার?

    বলতে গিয়ে নাম খুঁজে পেলাম না। শুধু একটা শব্দ মনে পরল "মানুষ"।

    ডানা ঝাপটিয়ে কলকাকলি শব্দ তুলে, উড়ে গেল পাখি মহা সুখে; অজানায়।

    ঠায়একাকী নিঝুম বাতাসের সাথে বসে ভাবছিলাম, এখানে কেন আমি?

    বৃক্ষ, লতা, জমিন, নদী পাহাড়ের সাথে অনাদি আমি,

    পাহাড়ের গিরিখাদে ঝর্না ও বৃক্ষের ঘন জড়াজড়ি,

    ভালোবাসার গান শুনতে শুনতে

    যখন ভাবছি কোথায় যাব ?

    তখন উপর থেকে ডেকে আকাশ বলল, আমি তোমাকে চিনি।

    তুমি যেদিকে যাও আমি পাহারায় থাকি।

    একটাই আকাশ চারপাশ ঢেকে রাখি

    আমার আর কোন নাম নেই।

    ভাবলাম আমিও মানুষ আমার আর কোন পরিচয় নেই,

    একটা জমিন জুড়ে পথ চলি....


     http://www.alokrekha.com

    3 comments:

    1. মেহরান খানMarch 3, 2019 at 6:06 AM

      অনেক দিন পর আলোকরেখায় নতুন কবিতা পেয়ে খুব ভালো লাগলো। পরিচয় কবিতায় - কবি রোকসানা রেইস নদীর সাথে যে কথোপথন করেছেন তা অনবদ্য। আমাদের জীবন প্রবাহ এক নদী তা তিনি মনের মাধুরী দিয়ে অংকিত করেছেন। অনেক শুভেচ্ছা কবি।

      ReplyDelete
    2. মোহন সিরাজীMarch 3, 2019 at 6:18 AM

      পরিচয় কবিতায় -নদীকে বলেছিলাম আমাকে মনে রাখতে। অনেকদিন পরে দেখা হলো ।নদী তখন বয়ে যাচ্ছে আপন মনে।আমার কথা মনে আছে, নদীকে ডেকে জানতে চাইলাম। চিনি না.. বলে চলে গেল হেসে, গেয়ে আপন মনে।" এই পংতিগুলি কবি রোকসানা রেইস এত বাস্তবতার সাথে চয়ন করেছেন তা প্রসংশার দাবীদার। অনেক শুভ কামনা কবি।

      ReplyDelete
    3. khub bhalo laglo. manush hishebeii toh amader porichoy. michimichi obhimane amader bela jay. dhonnobad kobi.

      ReplyDelete

    অনেক অনেক ধন্যবাদ