আলোকের এই ঝর্নাধারায় ধুইয়ে দাও -আপনাকে এই লুকিয়ে-রাখা ধুলার ঢাকা ধুইয়ে দাও-যে জন আমার মাঝে জড়িয়ে আছে ঘুমের জালে..আজ এই সকালে ধীরে ধীরে তার কপালে..এই অরুণ আলোর সোনার-কাঠি ছুঁইয়ে দাও..আমার পরান-বীণায় ঘুমিয়ে আছে অমৃতগান-তার নাইকো বাণী নাইকো ছন্দ নাইকো তান..তারে আনন্দের এই জাগরণী ছুঁইয়ে দাও অনন্তের অস্তিত্ব ! ------------- সুনিকেত চৌধুরী। ~ alokrekha আলোক রেখা
1) অতি দ্রুত বুঝতে চেষ্টা করো না, কারণ তাতে অনেক ভুল থেকে যায় -এডওয়ার্ড হল । 2) অবসর জীবন এবং অলসতাময় জীবন দুটো পৃথক জিনিস – বেনজামিন ফ্রাঙ্কলিন । 3) অভাব অভিযোগ এমন একটি সমস্যা যা অন্যের কাছে না বলাই ভালো – পিথাগোরাস । 4) আমাকে একটি শিক্ষিত মা দাও , আমি তোমাকে শিক্ষিত জাতি দেব- নেপোলিয়ন বোনাপার্ট । 5) আমরা জীবন থেকে শিক্ষা গ্রহন করি না বলে আমাদের শিক্ষা পরিপূর্ণ হয় না – শিলার । 6) উপার্জনের চেয়ে বিতরণের মাঝেই বেশী সুখ নিহিত – ষ্টিনা। 7) একজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি আরেকজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি কে জাগ্রত করতে পারে না- শেখ সাদী । 8) একজন দরিদ্র লোক যত বেশী নিশ্চিত , একজন রাজা তত বেশী উদ্বিগ্ন – জন মেরিটন। 9) একজন মহান ব্যাক্তির মতত্ব বোঝা যায় ছোট ব্যাক্তিদের সাথে তার ব্যবহার দেখে – কার্লাইন । 10) একজন মহিলা সুন্দর হওয়ার চেয়ে চরিত্রবান হওয়া বেশী প্রয়োজন – লং ফেলো। 11) কাজকে ভালবাসলে কাজের মধ্যে আনন্দ পাওয়া যায় – আলফ্রেড মার্শা
  • Pages

    লেখনীর সূত্রপাত শুরু এখান থেকে

    অনন্তের অস্তিত্ব ! ------------- সুনিকেত চৌধুরী।


    অনন্তের অস্তিত্ব !

    - সুনিকেত চৌধুরী। 



    অনন্তের অস্তিত্ব অতিক্রমে সহযোগী হতে চেয়ে

    অন্তরীণ হবো তোমাতে

    এই আকাঙ্খায় প্রতীক্ষা ছিল এতটাকাল।

    গতকাল আচমকা প্রচারিত ফেসবুক স্ট্যাটাস

    সম্বিৎ ফিরিয়ে দিল যেন।

    কা কা করে চীৎকার করলো কাক

    প্রার্থনা কক্ষ সংলগ্ন বোটানিক্যাল গার্ডেনের আপেল গাছের ডালে।

    খান খান হলো বিশ্বাস

    বাজলো বেহালায় বেহাগ।

    মুঠো ফোনে জড়ো হলো পুঞ্জিভূত ক্ষোভ

    পেলব মেঘেরা পালালো তল্লাট ছেড়ে।  

    এর মাঝে চিকণ পাড় কালো ঘোমটায়

    তরুলতা বিলালো হৃদয় উৎসারিত খাঁটি উত্তাপ  !

    বিনিদ্র রজনী শেষে আজ সকালে মুঠোফোন এলার্ম

    জানিয়ে দিলো কাজে যেতে হবে,

    যেতে হবে দপ্তরে !

    এখনো অনেকটা পথ বাকী

    হাঁটা পথে দূরের ওই সম্মেলন কেন্দ্র !



     http://www.alokrekha.com

    3 comments:

    1. রেশাদ সালেহীনMarch 27, 2019 at 6:15 AM

      অনন্তের অস্তিত্ব ! - সুনিকেত চৌধুরী'র বর্তমান যুগপটে লেখা কবিতা। কবি অন্তরীণ হতে চেয়েছেন তার প্রেমের মাঝে এতটা কাল। ফেসবুকের স্ট্যাটাস আমাদের সবার জীবনে বিশেষ গুরুত্ব বহন করে। কখনো উৎফুল্ল হয় আবার কখনো দেখা দেয় বিষাদের ছায়া। কবি তাই এখানে বোঝাতে চাইছেন বোধকরি বিশেষ কারো ফেসবুক স্ট্যাটাস কবির জীবনের মোড় ঘিরিয়া দিল। প্রাং লুব্ধ পরিবেশে ডেকে গেল কাকের কর্কশ কা কা ধ্বনি। খুব ভালো লাগলো কবিতাটা।

      ReplyDelete
    2. মেধা সেনMarch 27, 2019 at 6:31 AM

      সুনিকেত চৌধুরী'র "অনন্তের অস্তিত্ব !" - সাধারণ ভাষায় এক অসাধারণ কবিতা। যত যাই হোক বাস্তবতায় ফিরে আসতেই হয়।দারুন কবিতা ও অভিব্যক্তি। উত্কৃষ্ট চমৎকার জীবন বোধের প্রকাশ।অপূর্ব বিষয় বস্তু,ভাষাভাব ও শব্দচয়ন ও রচনা শৈলী মিলিয়ে অনবদ্য ও অনিন্দ্য এক কবিতা।

      ReplyDelete
    3. কবিতা রায়March 27, 2019 at 6:41 AM

      সুনিকেত চৌধুরী'র "অনন্তের অস্তিত্ব !" - দারুন অনবদ্য কবিতা ,পরে খুব ভালো লাগলো। যে আকাঙ্খায় প্রতীক্ষা ছিল এতটাকাল। বাস্তবের কষাঘাতে সম্বিৎ ফায়ার পেল। আমাদের জীবনের অনন্ত অস্তিত্ব তাই। খুব ভালো লাগল। অনেক শুভ কামনা কবি ভালো থাকবেন।

      ReplyDelete

    অনেক অনেক ধন্যবাদ