আলোকের এই ঝর্নাধারায় ধুইয়ে দাও -আপনাকে এই লুকিয়ে-রাখা ধুলার ঢাকা ধুইয়ে দাও-যে জন আমার মাঝে জড়িয়ে আছে ঘুমের জালে..আজ এই সকালে ধীরে ধীরে তার কপালে..এই অরুণ আলোর সোনার-কাঠি ছুঁইয়ে দাও..আমার পরান-বীণায় ঘুমিয়ে আছে অমৃতগান-তার নাইকো বাণী নাইকো ছন্দ নাইকো তান..তারে আনন্দের এই জাগরণী ছুঁইয়ে দাও "লুব্ধ অভীপ্সা" ---++++++++++--গীতালি দাশগুপ্তা। ~ alokrekha আলোক রেখা
1) অতি দ্রুত বুঝতে চেষ্টা করো না, কারণ তাতে অনেক ভুল থেকে যায় -এডওয়ার্ড হল । 2) অবসর জীবন এবং অলসতাময় জীবন দুটো পৃথক জিনিস – বেনজামিন ফ্রাঙ্কলিন । 3) অভাব অভিযোগ এমন একটি সমস্যা যা অন্যের কাছে না বলাই ভালো – পিথাগোরাস । 4) আমাকে একটি শিক্ষিত মা দাও , আমি তোমাকে শিক্ষিত জাতি দেব- নেপোলিয়ন বোনাপার্ট । 5) আমরা জীবন থেকে শিক্ষা গ্রহন করি না বলে আমাদের শিক্ষা পরিপূর্ণ হয় না – শিলার । 6) উপার্জনের চেয়ে বিতরণের মাঝেই বেশী সুখ নিহিত – ষ্টিনা। 7) একজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি আরেকজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি কে জাগ্রত করতে পারে না- শেখ সাদী । 8) একজন দরিদ্র লোক যত বেশী নিশ্চিত , একজন রাজা তত বেশী উদ্বিগ্ন – জন মেরিটন। 9) একজন মহান ব্যাক্তির মতত্ব বোঝা যায় ছোট ব্যাক্তিদের সাথে তার ব্যবহার দেখে – কার্লাইন । 10) একজন মহিলা সুন্দর হওয়ার চেয়ে চরিত্রবান হওয়া বেশী প্রয়োজন – লং ফেলো। 11) কাজকে ভালবাসলে কাজের মধ্যে আনন্দ পাওয়া যায় – আলফ্রেড মার্শা
  • Pages

    লেখনীর সূত্রপাত শুরু এখান থেকে

    "লুব্ধ অভীপ্সা" ---++++++++++--গীতালি দাশগুপ্তা।



    "লুব্ধ অভীপ্সা"
    ---++++++++++--গীতালি দাশগুপ্তা।
        সকাল থেকে বেলা গড়িয়ে যাচ্ছে ,
          আলোকিত নরম সকাল , এক সময় বিষন্ন প্রায়।
         উদ্ভ্রান্ত বাসনার প্রহর, বেলা গড়াবার সাথে সাথে
         নিস্তব্ধ লয়ে ঝিমিয়ে আসে, তারপর , ধীরে ধীরে 
                    নিথর হ'য়ে পরে।
           এ সময়টা অপরাহ্ন বেলা ।

     তেজদীপ্ত মেঘমুক্ত আকাশ স্তিমিত প্রায়,
      তারুণ্যের দাম্ভিক ভঙ্গিমার অবসরের পালা।
      কিছু পরে কালো কাপড়ের আচ্ছাদনে, নিঃশব্দ পায়ে,
               এগিয়ে আসবে প্রমিত সন্ধ্যা !
     অথচ , লুব্ধ বাসনার চাদরটা এখনো গা থেকে
                                         সরানো যাচ্ছে না।
          ও যেন অস্থি-মজ্জার সাথে এঁটে বসেছে,
                        অহর্নিশ পেতে চায় কিছু ।
                       তাইতো জাগে বিস্ময় !
           
            কৃষ্ণপক্ষ অতি ধী-রে গ্ৰাস করে নেয় পূর্ণ শশীকে,
              ঠি..ক তেমনি ভাবে চলে মানব জীবন।
           জন্ম থেকে কৃষ্ণ পক্ষের অদৃশ্য হাত
              ঠেলে নেয় অদৃশ্যের পথে।
          তারুণ্যের ভরা পূর্ণিমার পরিপূর্ণতা পেয়েও
                        মিশে যেতে হয় বিলুপ্তির বুকে,
           তবুও , সঙ্গ ছাড়ে না জীবনের লুব্ধ অভীপ্সা !
          গভীর আঁধারে ডুবে যাবার মূহূর্তেও করে
                   বেঁচে থাকার প্রবল চেষ্টা !
                           *************
     http://www.alokrekha.com

    1 comments:

    1. মিতা রহমানDecember 23, 2019 at 6:35 PM

      গীতালি দাশগুপ্তা'র লুব্ধ অভীপ্সা" একটি ভিন্ন ধর্মী কবিতা। খুব ভালো লাগলো। সময়ের সাথে মানবের যে তুলনা করেছে তা অনন্য। শব্দ চয়ন অনবদ্য। ভালো থাকবেন কবি।

      ReplyDelete

    অনেক অনেক ধন্যবাদ