আলোকের এই ঝর্নাধারায় ধুইয়ে দাও -আপনাকে এই লুকিয়ে-রাখা ধুলার ঢাকা ধুইয়ে দাও-যে জন আমার মাঝে জড়িয়ে আছে ঘুমের জালে..আজ এই সকালে ধীরে ধীরে তার কপালে..এই অরুণ আলোর সোনার-কাঠি ছুঁইয়ে দাও..আমার পরান-বীণায় ঘুমিয়ে আছে অমৃতগান-তার নাইকো বাণী নাইকো ছন্দ নাইকো তান..তারে আনন্দের এই জাগরণী ছুঁইয়ে দাও তুমি একালব্য ~ alokrekha আলোক রেখা
1) অতি দ্রুত বুঝতে চেষ্টা করো না, কারণ তাতে অনেক ভুল থেকে যায় -এডওয়ার্ড হল । 2) অবসর জীবন এবং অলসতাময় জীবন দুটো পৃথক জিনিস – বেনজামিন ফ্রাঙ্কলিন । 3) অভাব অভিযোগ এমন একটি সমস্যা যা অন্যের কাছে না বলাই ভালো – পিথাগোরাস । 4) আমাকে একটি শিক্ষিত মা দাও , আমি তোমাকে শিক্ষিত জাতি দেব- নেপোলিয়ন বোনাপার্ট । 5) আমরা জীবন থেকে শিক্ষা গ্রহন করি না বলে আমাদের শিক্ষা পরিপূর্ণ হয় না – শিলার । 6) উপার্জনের চেয়ে বিতরণের মাঝেই বেশী সুখ নিহিত – ষ্টিনা। 7) একজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি আরেকজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি কে জাগ্রত করতে পারে না- শেখ সাদী । 8) একজন দরিদ্র লোক যত বেশী নিশ্চিত , একজন রাজা তত বেশী উদ্বিগ্ন – জন মেরিটন। 9) একজন মহান ব্যাক্তির মতত্ব বোঝা যায় ছোট ব্যাক্তিদের সাথে তার ব্যবহার দেখে – কার্লাইন । 10) একজন মহিলা সুন্দর হওয়ার চেয়ে চরিত্রবান হওয়া বেশী প্রয়োজন – লং ফেলো। 11) কাজকে ভালবাসলে কাজের মধ্যে আনন্দ পাওয়া যায় – আলফ্রেড মার্শা
  • Pages

    লেখনীর সূত্রপাত শুরু এখান থেকে

    তুমি একালব্য


















    তুমি একালব্য
    দুলাল সরকার

    বারবার তোমাকেই প্রমাণ করতে হবে তুমি একলব্য
    তোমাকেই প্রমাণ করতে হবে গুরুকে সন্তুষ্ট করতে
    তোমার ধনুর গুণ সঞ্চালনে সুদক্ষ বৃদ্ধাঙ্গুলি কেটে
    গুরুকে সন্তুষ্ট করতে -যুগেও গুরুদক্ষেণা হিসেবে
    গুরুকে দিতে হবে মেধা, বৃদ্ধাঙ্গুলি,
    শ্রম বিভক্তির মতো শ্রেণিসংগ্রাম, খনির অন্ধকার

    শীতার্ত রাজপথে শুয়ে রাত্রি মন্থনশেষে
    জীবনের প্রতি ঘৃণা, তীব্র ঘৃণায় জন্মদাত্রী
    জন্মদাতা পিতাকে বলতে ইচ্ছে হয় শুধুই পথের কুকুর

    তোমাকেই এই কনকনে শীতভোরে উঠে
    কাদাজলে নেমে উর্বর মাটির বুকে
    শস্য উৎপাদনের জন্য দায়বদ্ধ হয়ে বারবার
    তোমাকেই আর্যপুত্র পার্থকে শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণে
    গুরুর কাছে নতজানু হয়ে বলতে হয়
    আমরাই তোমাদের দাস, আমরাই তোমাদের ভূমিপুত্র
    অধিকার রক্ষায় যুগে যুগে জীবন দিয়ে-
    এভাবেই রচনা করতে হয় একুশ।

     http://www.alokrekha.com

    2 comments:

    1. দেবপ্রিয় সেনFebruary 27, 2018 at 3:30 PM

      দুলাল সরকার'র "তুমি একালব্য" কবিতাটা এতো বাস্তব সম্মত। আমাদের আজ একলব্য হিসাবেই বাচঁতে হয়। গুরুকে অযাচিত গুরু দক্ষিণা দিতে হয়। দারুণভাবে কবি এই কবিতায় অংকিত করেছেন।অনেক অনেক শুভেচ্ছা কবি

      ReplyDelete
    2. তপতী আহমেদFebruary 27, 2018 at 3:48 PM

      দুলাল সরকার'র "তুমি একালব্য" কবিতায় বারবার তোমাকেই প্রমাণ করতে হবে তুমি একলব্য তোমাকেই প্রমাণ করতে হবে গুরুকে সন্তুষ্ট করতেতোমার ধনুর গুণ সঞ্চালনে সুদক্ষ বৃদ্ধাঙ্গুলি কেটে গুরুকে সন্তুষ্ট করতে এ-যুগেও গুরুদক্ষেণা হিসেবে গুরুকে দিতে হবে মেধা, বৃদ্ধাঙ্গুলি" এই কয়েকটা লাইনে অতি সুন্দর চমত্কার ও বেশ মনোরম বাস্তবতা ফুটের উঠেছে তা প্রশংসনীয় ।অনেক অনেক শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ কবি.

      ReplyDelete

    অনেক অনেক ধন্যবাদ