আলোকের এই ঝর্নাধারায় ধুইয়ে দাও -আপনাকে এই লুকিয়ে-রাখা ধুলার ঢাকা ধুইয়ে দাও-যে জন আমার মাঝে জড়িয়ে আছে ঘুমের জালে..আজ এই সকালে ধীরে ধীরে তার কপালে..এই অরুণ আলোর সোনার-কাঠি ছুঁইয়ে দাও..আমার পরান-বীণায় ঘুমিয়ে আছে অমৃতগান-তার নাইকো বাণী নাইকো ছন্দ নাইকো তান..তারে আনন্দের এই জাগরণী ছুঁইয়ে দাও বালিশ বদল ~ alokrekha আলোক রেখা
1) অতি দ্রুত বুঝতে চেষ্টা করো না, কারণ তাতে অনেক ভুল থেকে যায় -এডওয়ার্ড হল । 2) অবসর জীবন এবং অলসতাময় জীবন দুটো পৃথক জিনিস – বেনজামিন ফ্রাঙ্কলিন । 3) অভাব অভিযোগ এমন একটি সমস্যা যা অন্যের কাছে না বলাই ভালো – পিথাগোরাস । 4) আমাকে একটি শিক্ষিত মা দাও , আমি তোমাকে শিক্ষিত জাতি দেব- নেপোলিয়ন বোনাপার্ট । 5) আমরা জীবন থেকে শিক্ষা গ্রহন করি না বলে আমাদের শিক্ষা পরিপূর্ণ হয় না – শিলার । 6) উপার্জনের চেয়ে বিতরণের মাঝেই বেশী সুখ নিহিত – ষ্টিনা। 7) একজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি আরেকজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি কে জাগ্রত করতে পারে না- শেখ সাদী । 8) একজন দরিদ্র লোক যত বেশী নিশ্চিত , একজন রাজা তত বেশী উদ্বিগ্ন – জন মেরিটন। 9) একজন মহান ব্যাক্তির মতত্ব বোঝা যায় ছোট ব্যাক্তিদের সাথে তার ব্যবহার দেখে – কার্লাইন । 10) একজন মহিলা সুন্দর হওয়ার চেয়ে চরিত্রবান হওয়া বেশী প্রয়োজন – লং ফেলো। 11) কাজকে ভালবাসলে কাজের মধ্যে আনন্দ পাওয়া যায় – আলফ্রেড মার্শা
  • Pages

    লেখনীর সূত্রপাত শুরু এখান থেকে

    বালিশ বদল

    বালিশ বদল
    মেহরাব রহমান

    তুমি যেদিন আসলে প্রথম আমার ঘরে
    পাশবালিশের জায়গা দখল হাওয়া বদল
    সঙ্গে তারই বালিশ-বদল।
    এমনি ধারায় চলছিল তো চলছিল ;
    হঠাৎ কখন বুকের ভেতর বন্ধ ঘরে
    অন্ধ জ্বালা তিরতিরিয়ে দুরুদুরু
    কাঁপছিল তো কাঁপছিল।
    মান-অভিমান চলছিল তো চলছিল ;
    তখন আবার বালিশ-বদল জায়গা দখল
    মাথার নিচের বালিশ এখন কোল-বালিশ।
    তোমার সঙ্গে আড়ি আমার, কাড়ি কাড়ি
    নালিশ শুধুই নালিশ।
    কী যে জ্বালা
    মহাজ্বালা
    বালিশ নিয়ে বিড়ম্বনা
    কী যন্ত্রণা!
    বালিশের কি মুখ আছে?
    আদর দেয়ার ঠোঁট আছে?
    কুসুম-কোমল বুক কাঁপে?
    তোমার যেমন?
    বালিশের কি ওম আছে?
    অন্যরকম ঝাঁজ আছে?
    তোমার যেমন?
    বালিশের কি মধ্যিরাতের ঢুলঢুল
    মাতাল-করা চোখ আছে?
    তোমার যেমন?
    বালিশের কি পা আছে?
    ঘুমের ভেতর যখন-তখন
    গায়ের ওপর তুলে দেবে
    নানান ঢঙে নানান ভাঁজে
    বালিশের কি জাপটে ধরার পেলব
    দুটো হাত আছে,
    তোমার যেমন?
    ঊরুর ভারে গুরু গুরু কাঁপবে
    আমার ক্ষীণ দেহ
    বালিশের কি তেমন কোনো ভার আছে,
    তোমার যেমন?
    আদর করে শেষপ্রহরে মান ভাঙাবে
    বালিশের কি মন আছে,
    তোমার যেমন?
    বালিশ নিয়ে কী যন্ত্রণা
    আড়িটাড়ি বাতিল এখন
    এই অকেজো শিমুল তুলোর বালিশে
    আর কাজ হবে না।
    আবার আমার পালাবদল
    বালিশ-বদল, হাওয়া-বদল।
    উষ্ণ বালিশ, পেলব বালিশ
    প্রাণের ছোঁয়ায় তপ্ত বালিশ
    মনের মাঝে আমার জন্যে
    একশো নালিশ
    তেমনি বালিশ থাকুক আমার
    বুকের ভেতরে সারাজীবন।


     http://www.alokrekha.com

    2 comments:

    1. আহসান হাবিবApril 24, 2018 at 3:18 PM

      কবি মেহরাব রহমান” বালিশ বদল" কবিতায় জীবনের গভীর ভাবনা, প্রতিফলন ও তার অভিব্যক্তির প্রকাশ করেছেন।যেমন বিষয় বস্তু, তেমনি চমৎকার ভাষাভাব অপূর্ব ও শব্দচয়ন ও রচনা শৈলী মিলিয়ে অনবদ্য ও অনিন্দ্য এক কবিতা। বড্ডো ভালো। অনেক ভালোবাসা কবি।

      ReplyDelete
    2. আহসান হাবিব ভাই আপনার ভাললাগা আমার কাছে অনেক পাওয়া
      অশেষ কৃতজ্ঞতা

      ReplyDelete

    অনেক অনেক ধন্যবাদ