আলোকের এই ঝর্নাধারায় ধুইয়ে দাও -আপনাকে এই লুকিয়ে-রাখা ধুলার ঢাকা ধুইয়ে দাও-যে জন আমার মাঝে জড়িয়ে আছে ঘুমের জালে..আজ এই সকালে ধীরে ধীরে তার কপালে..এই অরুণ আলোর সোনার-কাঠি ছুঁইয়ে দাও..আমার পরান-বীণায় ঘুমিয়ে আছে অমৃতগান-তার নাইকো বাণী নাইকো ছন্দ নাইকো তান..তারে আনন্দের এই জাগরণী ছুঁইয়ে দাও সূর্যোদয়ের পাঠশালায় ------------ মেহরাব রহমান ~ alokrekha আলোক রেখা
1) অতি দ্রুত বুঝতে চেষ্টা করো না, কারণ তাতে অনেক ভুল থেকে যায় -এডওয়ার্ড হল । 2) অবসর জীবন এবং অলসতাময় জীবন দুটো পৃথক জিনিস – বেনজামিন ফ্রাঙ্কলিন । 3) অভাব অভিযোগ এমন একটি সমস্যা যা অন্যের কাছে না বলাই ভালো – পিথাগোরাস । 4) আমাকে একটি শিক্ষিত মা দাও , আমি তোমাকে শিক্ষিত জাতি দেব- নেপোলিয়ন বোনাপার্ট । 5) আমরা জীবন থেকে শিক্ষা গ্রহন করি না বলে আমাদের শিক্ষা পরিপূর্ণ হয় না – শিলার । 6) উপার্জনের চেয়ে বিতরণের মাঝেই বেশী সুখ নিহিত – ষ্টিনা। 7) একজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি আরেকজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি কে জাগ্রত করতে পারে না- শেখ সাদী । 8) একজন দরিদ্র লোক যত বেশী নিশ্চিত , একজন রাজা তত বেশী উদ্বিগ্ন – জন মেরিটন। 9) একজন মহান ব্যাক্তির মতত্ব বোঝা যায় ছোট ব্যাক্তিদের সাথে তার ব্যবহার দেখে – কার্লাইন । 10) একজন মহিলা সুন্দর হওয়ার চেয়ে চরিত্রবান হওয়া বেশী প্রয়োজন – লং ফেলো। 11) কাজকে ভালবাসলে কাজের মধ্যে আনন্দ পাওয়া যায় – আলফ্রেড মার্শা
  • Pages

    লেখনীর সূত্রপাত শুরু এখান থেকে

    সূর্যোদয়ের পাঠশালায় ------------ মেহরাব রহমান



    সূর্যোদয়ের পাঠশালায়
    মেহরাব রহমান
    উদ্ভিন্ন যৌবনা রূপবতী যুবতি
    বুড়িগঙ্গা কী করে বুড়ি হয় কে জানে
    যদি প্রবাহিত গঙ্গাই হয়
    তবে নব প্রজন্ম গঙ্গা নয় কেন ?
    কৈশোরের অবচেতনের বেলাভূমিতে
    আমার একটি বাসা ছিল
    ছোট্ট একটি ঘর
    প্রেয়সী গঙ্গার ধারে খোলা আকাশের নিচে বসে
    খোলা চোখে খোলা আকাশ দেখা
    উড়াকু হাওয়ায় উড়ে গাঙচিলের মিছিল
    এবং জানি না শত কি না কোটি
    অচেনা পাখির ভিড়
    সূর্যোদয়ের পাঠশালায় ছেঁড়াপাল
    ভেলায় বসে ডানা ভাঙা এক পাখি
    সম্ভাব্য এক কবির কলম
    এঁকে যেত ক্ষয়িষ্ণু ভঙ্গুর
    স্তব্ধ মৌন নিথর চাঁদের কথা
    মেলার বঙ্গসুন্দরী
    ললনার বেণী দোলে শূন্যে
    লাল নীল সোনালি জরির
    কারুকাজ ফিতে দোলে পেন্ডুলামের মতো
    আজও শুনি ফিসফিস
    কারা যেন গুঞ্জরিত মরা গঙ্গার ধারে
    সূর্যোদয়ের সময় নিজহাতে গড়া
    জলসা ঘরের ছোট্ট সে বাসা
    সেই কবে ডুবে গেছে
    পড়ে গেছে বুড়িগঙ্গার জলে
    হঠাৎ এক প্রকান্ড ঝড়ো বাতাসে
    সূর্যোদয়ের পাঠশালার ইতি টেনে
    কবির হৃদয় সর্পদংশনে বিষণ্ন
    এভাবেই জীবনের নানা পর্বের হাতবদল
    নানা কষ্ট নানা রং
    যেন রমণীর মাংসপিণ্ডে নিজেকে খোঁজা 
    চার-পাঁচ প্রসব বেদনায় আদিগন্ত বোঝা




     http://www.alokrekha.com

    7 comments:

    1. নোমান রশিদJanuary 4, 2020 at 4:57 PM

      সূর্যোদয়ের পাঠশালায় কবিতায় কবি মেহরাব রহমান জীবনের আরেক রূপ তুলে ধরেছেন। বুড়িগঙ্গা কী করে বুড়ি হয় কে জানে
      যদি প্রবাহিত গঙ্গাই হয়
      তবে নব প্রজন্ম গঙ্গা নয় কেন ? এ প্রশ্ন করে কবিতায় এক চমক এনে দিয়েছে। খুব ভালো লাগলো। শুভ কামনা কবি।

      ReplyDelete
    2. শিমুল মোস্তফাJanuary 4, 2020 at 5:20 PM

      কবি মেহরাব রহমান সূর্যোদয়ের পাঠশালায় কবিতায় কবির মনের কথা চিত্রিত করেছেন। কবিতার নামকরণ অনন্য "সূর্যোদয়ের পাঠশালায় " .খুব ভালো লাগলো পড়তে -ভালো লাগলো আবৃতি করতে। অভিনন্দন কবি।

      ReplyDelete
    3. মোহন সিরাজীJanuary 4, 2020 at 5:54 PM

      কৈশোরের অবচেতনের বেলাভূমিতে গঙ্গার ধারে খোলা আকাশের নিচে বসে
      প্রেয়সী সাথে ছিল একটি বাসা ছিল ছোট্ট একটি ঘর.খোলা চোখে খোলা আকাশ দেখা উড়াকু হাওয়ায় উড়ে গাঙচিলের মিছিল অচেনা পাখির ভিড়।
      সূর্যোদয়ের পাঠশালায় ছেঁড়াপাল ভেলায় বসে ডানা ভাঙা এক পাখি কবির ভাবনায় ভর করে সূর্যোদয়ের পাঠশালায় হয়ে উঠেছে এক অনবদ্য কবিতা কবি মেহরাব রহমান নিয়ে গেছেন কবিতাকে এক উচ্চ মার্গে। খুব ভালো লাগলো কবি। ভালো থাকবেন ,আর এমন অনন্য কবিতা উপহার দেবেন।

      ReplyDelete
    4. শর্মিষ্ঠা ব্যানার্জিJanuary 4, 2020 at 6:00 PM

      সূর্যোদয়ের পাঠশালায় এক অনবদ্য কবিতা। কবি মেহরাব রহমান নিয়ে গেছেন কবিতাকে এক উচ্চ মার্গে। খুব ভালো লাগলো কবি। বিষয় বস্তু কবিতাকে করেছে অনন্য। শুভ কামনা।

      ReplyDelete
    5. মীনাক্ষী পালJanuary 4, 2020 at 6:04 PM

      সূর্যোদয়ের পাঠশালায় কবিতাটা পরে ভালো লাগলো। অনেক গুলো বিষয় বস্তু বর্ণিত করেছেন কবি মেহরাব রহমান। অতন্ত্য অভিনব কবিতা। অনেক শুভেচ্ছা কবি।

      ReplyDelete
    6. মিতা রহমানJanuary 4, 2020 at 6:20 PM

      বিভিন্ন আবেগের সমন্বিত সূর্যোদয়ের পাঠশালায় কবিতাটা খুব ভালো লাগলো পড়ে। কবির হৃদয় নিংড়ানো অনুভূতির কি গভীর প্রকাশ।অনবদ্য কবি মেহরাব রহমান।

      ReplyDelete
    7. সূর্যোদয়ের পাঠশালায় কবিতাটা চেতনার অভিব্যক্তি এই কবিতা। নিদারুন একটা কবিতা। অনেক শুভেচ্ছা কবি। অনিন্দ্য এক কবিতা। কবি মেহরাব রহমান দ্বারা রচিত। আমরা অপেক্ষায় থাকি কবি মেহরাব রহমানের কবিতার জন্য। মনটা ভরিয়ে দিল। দারুন অনুভূতি কবিতা বার বার পড়তে ইচ্ছে করে। ! আলোকরেখাকে ও কবি মেহরাবকে অনেক ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা ।

      ReplyDelete

    অনেক অনেক ধন্যবাদ