আলোকের এই ঝর্নাধারায় ধুইয়ে দাও -আপনাকে এই লুকিয়ে-রাখা ধুলার ঢাকা ধুইয়ে দাও-যে জন আমার মাঝে জড়িয়ে আছে ঘুমের জালে..আজ এই সকালে ধীরে ধীরে তার কপালে..এই অরুণ আলোর সোনার-কাঠি ছুঁইয়ে দাও..আমার পরান-বীণায় ঘুমিয়ে আছে অমৃতগান-তার নাইকো বাণী নাইকো ছন্দ নাইকো তান..তারে আনন্দের এই জাগরণী ছুঁইয়ে দাও বন্ধন -------- সানজিদা রুমি ~ alokrekha আলোক রেখা
1) অতি দ্রুত বুঝতে চেষ্টা করো না, কারণ তাতে অনেক ভুল থেকে যায় -এডওয়ার্ড হল । 2) অবসর জীবন এবং অলসতাময় জীবন দুটো পৃথক জিনিস – বেনজামিন ফ্রাঙ্কলিন । 3) অভাব অভিযোগ এমন একটি সমস্যা যা অন্যের কাছে না বলাই ভালো – পিথাগোরাস । 4) আমাকে একটি শিক্ষিত মা দাও , আমি তোমাকে শিক্ষিত জাতি দেব- নেপোলিয়ন বোনাপার্ট । 5) আমরা জীবন থেকে শিক্ষা গ্রহন করি না বলে আমাদের শিক্ষা পরিপূর্ণ হয় না – শিলার । 6) উপার্জনের চেয়ে বিতরণের মাঝেই বেশী সুখ নিহিত – ষ্টিনা। 7) একজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি আরেকজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি কে জাগ্রত করতে পারে না- শেখ সাদী । 8) একজন দরিদ্র লোক যত বেশী নিশ্চিত , একজন রাজা তত বেশী উদ্বিগ্ন – জন মেরিটন। 9) একজন মহান ব্যাক্তির মতত্ব বোঝা যায় ছোট ব্যাক্তিদের সাথে তার ব্যবহার দেখে – কার্লাইন । 10) একজন মহিলা সুন্দর হওয়ার চেয়ে চরিত্রবান হওয়া বেশী প্রয়োজন – লং ফেলো। 11) কাজকে ভালবাসলে কাজের মধ্যে আনন্দ পাওয়া যায় – আলফ্রেড মার্শা
  • Pages

    লেখনীর সূত্রপাত শুরু এখান থেকে

    বন্ধন -------- সানজিদা রুমি















    বন্ধন
    সানজিদা রুমি

    আমি এক ফলবান বৃক্ষ বাগান 
    কত সহস্র শ্রমে ফলে ফুলে সাজিয়েছি নিজেরে  -
     শাখা প্রশাখারে স্নেহ ভালোবাসায় ভরিয়ে রাখি সারাক্ষন।
    কত পাখি গায় ,বাসা বাঁধে ,ভালোবাসে শুকসারি
    ক্লান্ত পথিক দুপুর রোদে জিরোয় আমার ছায়ায়
    কতজন নিশ্চিন্তে আমার কোলে নিদ্রা যায়।
    আমার শেকড়গুলো ক্রমশ গভীর থেকে গভীরতর হচ্ছে
    আরো শক্ত হচ্ছে আমার বাঁধন।
    কিন্তু আমার যে আজন্মের সাধ ছিল -
    সাদা মেঘের ভেলায় ভেসে বেড়াব  প্রাণের উল্লাস লয়ে
    রাখালের বাঁশির সুরে সুরে হারিয়ে যাবো
    দূর -দূরান্তে।
    কিন্তু হায়! আমি যে চলার শক্তি হারিয়ে ফেলেছি
    সংসার জমিনে সুন্দর বাগান সাজিয়েছি।
    ডাল  পালা সতেজ করেছি
    নিজ রসে  উৎসরি।
    ভালো লাগে যখন পাখির কলতানে আন্দোলিত হয় শাখা-পল্লব
    নানা রঙের ফুল ফোটে সুগন্ধে ভরায় সংসার বাগান।
    মুগ্ধ নয়নে চেয়ে থাকি
    কেমন ভালবাসা জমে ওঠে এই বুকের মাঝে 
    এই কাননের লাগি ,
    মমতার বন্ধনে আটকে পড়েছি -
    এই সংসার নামক ফলবান বাগানে।
    এখন আর কোথায় যাব? কিসের সন্ধানে?
    এত দায়ভার ! চারপাশে এত বৃক্ষের আবেদন
    আষ্টে পিষ্টে বাঁধা জীবন-
    মায়ার বন্ধন।

    সানজিদা রুমি কর্তৃক গ্রথিত http://www.alokrekha.com

    11 comments:

    1. কামরুজ্জামান হীরাOctober 15, 2018 at 4:20 PM

      অনেকদিন পর আলোকরেখায় লেখা পায়ে স্বস্তি বোধ করছি। সানজিদা রুমি লেখা আমার বরাবরই খুব ভালো লাগে। তার লেখায় জীবন বোধের কথা আমরা পাই বিশেষ করে তাঁর কবিতায়। বন্ধন কবিতাটা তারই প্রকাশ। আমাদের জীবনটা আসলেও একটা বৃক্ষ বাগান। খবই সুন্দর বার্তা বহন করে এই লেখায়। অনেক অনেক শুভেচ্ছা !

      ReplyDelete
    2. কবিতা রায়October 15, 2018 at 4:27 PM

      অনেকদিন পর আলোকরেখায় লেখা পায়ে খুবই আনন্দিত । ভেবেছিলাম গতানুগতিক ধারায় অনেক ভালোকিছুর মত আলোকরেখাও বোধ হয় আমাদের হারাতে হবে। আজ সানজিদা রুমির লেখা পায়ে অনেক অনেক ভালো লাগছে। জানিনা কি কারণে প্রকাশনা বন্ধ হয়েছিল। আশা করবো আর যেন এমনটি না হয়। অনেক অনেক শুভেচ্ছা !

      ReplyDelete
    3. প্রিয় পাঠকবৃন্দ,

      আপনাদের অনিচ্ছাকৃত সাময়িক অসুবিধার জন্য "আলোকরেখা "র পক্ষ থেকে আমি ক্ষমা প্রার্থী। আপনাদের হয়তো মনে আছে কিছুদিন আগে আমি আপনাদের অবগতির জন্য একটি প্রজ্ঞপ্তি দিয়েছিলাম।সেখানে উল্লেখ ছিল "আজ সকাল থেকেই "আলোকরেখা"কে হ্যাক করে অচল করে দেয়া হয়েছিল। আমাদের কারিগরী সাহায্যদাতা ভিন দেশ থেকে আমাদের জানালেন এই কানাডায় বাঙালী পাড়ায় অবস্থিত হ্যাকারের আর আই পি এড্রেস যেখান থেকে "আলোকরেখা"র ওপর আক্রমণ চালানো হয়েছে! ! এই লেখার মাধ্যমে আমি তাদেরকে সতর্ক করে দিতে চাই এই কাজ যারা করেছেন তা যদি পুনরায় ঘটে তবে আমি বাধ্য হবে তাদের সকল তথ্য ও দলিল নিয়ে কানাডা সাইবার ক্রাইম -এর আশ্রয় নিতে। আজকের এই দিনে সারা বাংলাদেশ এবং পৃথিবীর সব দেশে আমরা যত বাঙালী আছি আমরা তোমাদের জানিয়ে দিতে চাই "তোমরা আমাদের দাবায়ে রাখতে পারবা না!"
      আবারও আমরা সেই ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করছিলাম।হ্যাকারদের কিছু বাজে ধরণের ভাইরাভ -এ আলোকরেখা আক্রন্ত হয়েছিল। তখন এই ভাইরাস সম্পর্ন রূপে নির্মূল করতে কিছু কিছু অংশ বন্ধ রাখতে হয়েছিল।সে জন্য দুঃখিত। তবে আপনাদের ভালোবাসায় আলোকরেখা সম্পূর্ণ ভাইরাস মুক্ত। আমি আপনাদের ক্ষোভের সাথে একাত্মতা জ্ঞাপন করছি । আরো কয়েকটি বিষয় আপনাদের মন্তব্যে উঠে এসেছে যেমন প্রতিশ্রুত লেখা। আসলে এটাও হ্যাকিঙের কারণে।যেহেতু এটা একটা ঐতিহাসিক নিবন্ধ তাই এর আকার কবিতার থেকে বড় ও নির্ভুল তথ্য দিন সন তারিখ ভিত্তিক। তাই টাইপ করা কালীন বার বার অন্য বাজে ওয়েব সাইটে নিয়ে যাচ্ছিল।আমি হলপ করে বলতে পারি,এ কোন স্বাধীনতা বিরোধী চক্রের কাজ। যারা চায় না নতুন প্রজন্মকে সত্য ইতিহাস জানাতে। কিন্তু জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান তাঁর বাণীতে আমাদের এক অমোঘ সত্য কথা শিখিয়ে গেছেন। "তোমরা আমাদের দাবায়ে রাখতে পারবা না!"
      তাই আলোকরেখার কে ও দাবিয়ে রাখতে পারেনি।আলোকরেখা কোরো রক্ত চক্ষুর কাছে হার মানেনি। এখন থেকে আপনাদের কোন অভিযোগ করার সুযোগ দেব না। আপনাদের জন্যই আলোকরেখার জন্ম।আপনারা ভালবেসে পড়েন এই কৃতজ্ঞতা রাখার জায়গা নেই। আপনারা আছেন বলেই আছে। এখন থেকে আপনারা তালিকা ভুক্ত সব বিষয়ে লেখা পাবেন।
      আবার আন্তরিক ধন্যবাদ আলোকরেখাকে ভালবেসে উপরের দিকে উঠানোর জন্য। অলোকরেখার পাঠক সংখ্যা ৭ লক্ষের উপরে সেতো পাঠক আপনাদেরই দান। ভালো থাকবেন!ভালো থাকাটাই সব--ভাল থাকার মানে-ই হল জীবন্ত উৎসব। আরো বেশি বেশি করে আলোকরেখা পড়ুন ও মূল্যবান মন্তব্য দিন।

      ReplyDelete
    4. কাজী ফরজ রশিদOctober 15, 2018 at 4:55 PM

      যারা নিজে কিছু করতে পারে না তারাই এই ধরনের কাজ করে । আমরা এই ধরণের অসভ্য কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দা জানাই। আলোকরেখার যেদিন থেকে জন্ম সেদিন থেকেই আলোকরেখার সাথে ছিলাম থাকব। দুষ্ট কোন অপশক্তি জিততে পড়ঁবে না। আলোকরেখার চলার পথ আলোকিত হোক এই কামনা করি।

      ReplyDelete
    5. গার্গী সেন গুপ্তাOctober 15, 2018 at 5:05 PM

      সানজিদা রুমির কবিতা জীবনধর্মী কবিতা। সে প্রেমের কবিতা হোক অথবা নারীবাদী কবিতা হোক না কেন। বন্ধন কবিতাটা মূলত নারীর জীবনের প্রতিচ্ছবি। একজন নারী যে একজন মাতা সন্তানেরা তার শাখা প্রশাখা ফুল ফল। তার শেকড়গুলো এত গভীর হয় যে সে চলার শক্তি হারিয়ে ফেলে। দারুন অনবদ্য ভাবের কবিতা। খুবই ভালো লাগলো।

      ReplyDelete
    6. কৃষ্ণা সেনOctober 15, 2018 at 5:41 PM

      সানজিদা রুমির কবিতা জীবনধর্মী বাস্তবতার প্রতিচ্ছবি । দারুন অনবদ্য কবিতা। খুবই ভালো লাগলো। আমাদের ইচ্ছে হয় দূরদূরান্তে পারি দেয় -মেঘের ভেলায় চড়ে ভেসে বেড়াই কিন্তু সংসারের কারণে তা সম্ভব হয় না। সংসার বাগানে আমাদের মূল এমনভাবে গেঁথে যায় যে চলার শক্তি হারিয়ে ফেলি এত সুন্দর করে এই চিত্র অংকন করেছেন কবি। অনেক ধন্যবাদ আমাদের মনের কথা কবিতায় বলার জন্য। অনেক ভালোবাসা কবি।

      ReplyDelete
    7. আলোকরেখার জয় হোক। আমরা বুঝতে পারছিলাম কোন একটা ঝামেলা হয়েছে। আলোকরেখার সাথে ছিলাম আলোকরেখার সাথে থাকবো কেউ আমাদের দাবিয়ে রাখতে পারবে না। জয় আলোকরেখা

      ReplyDelete
    8. বেলাল সিরাজিOctober 15, 2018 at 11:55 PM

      " এই কাননের লাগি ,মমতার বন্ধনে আটকে পড়েছি -এই সংসার নামক ফলবান বাগানে।
      এখন আর কোথায় যাব? কিসের সন্ধানে?এত দায়ভার ! চারপাশে এত বৃক্ষের আবেদন আষ্টে পিষ্টে বাঁধা জীবন-মায়ার বন্ধন।" এই কোটা পংতি গুলিতে জীবনের বাস্তবতা লুকানো। সানজিদা রুমি বন্ধন কবিতা এলটি অপরূপ জীবনধর্মী অনবদ্য কবিতা।

      ReplyDelete
    9. বেলাল সিরাজিOctober 15, 2018 at 11:56 PM

      " এই কাননের লাগি ,মমতার বন্ধনে আটকে পড়েছি -এই সংসার নামক ফলবান বাগানে।
      এখন আর কোথায় যাব? কিসের সন্ধানে?এত দায়ভার ! চারপাশে এত বৃক্ষের আবেদন আষ্টে পিষ্টে বাঁধা জীবন-মায়ার বন্ধন।" এই কোটা পংতি গুলিতে জীবনের বাস্তবতা লুকানো। সানজিদা রুমি বন্ধন কবিতা এলটি অপরূপ জীবনধর্মী অনবদ্য কবিতা।

      ReplyDelete
    10. টরোন্টোর বাঙালী পাড়া ড্যানফোর্থ এর ওই লোকজনকে ও তাদের ঐধরণের কার্য্যকলাপ সম্মন্ধে জানা থাকা সত্ত্বেও সবাই তাদের পৃষ্টপোষকতা করেন ও তল্পিবাহক এর কাজ করে কৃতার্থ হন !তাদেরকে তোয়াজ করেন !

      ReplyDelete
    11. ঋতু মীরOctober 16, 2018 at 9:06 PM

      'বন্ধন' কবিতার জীবনধর্মী বাস্তবতা মন ছুঁয়ে গেল। 'সংসার জমিনে সুন্দর বাগান সাজিয়েছি।
      ডাল পালা সতেজ করেছি
      নিজ রসে উৎসরি।' - অসাধারণ এই অভিব্যাক্তি! সংসার যেন সত্যি এক দায়ভার, জড়িয়ে রাখে কঠিন বন্ধনের শিকলে-ভালবাসায়, আনন্দে, কষ্টে এবং শোকে! অনেক শুভকামনা সানজিদা রুমি!

      ReplyDelete

    অনেক অনেক ধন্যবাদ