আলোকের এই ঝর্নাধারায় ধুইয়ে দাও -আপনাকে এই লুকিয়ে-রাখা ধুলার ঢাকা ধুইয়ে দাও-যে জন আমার মাঝে জড়িয়ে আছে ঘুমের জালে..আজ এই সকালে ধীরে ধীরে তার কপালে..এই অরুণ আলোর সোনার-কাঠি ছুঁইয়ে দাও..আমার পরান-বীণায় ঘুমিয়ে আছে অমৃতগান-তার নাইকো বাণী নাইকো ছন্দ নাইকো তান..তারে আনন্দের এই জাগরণী ছুঁইয়ে দাও পবিত্র অপরাহ্নে ---------মুনা চৌধুরী ~ alokrekha আলোক রেখা
1) অতি দ্রুত বুঝতে চেষ্টা করো না, কারণ তাতে অনেক ভুল থেকে যায় -এডওয়ার্ড হল । 2) অবসর জীবন এবং অলসতাময় জীবন দুটো পৃথক জিনিস – বেনজামিন ফ্রাঙ্কলিন । 3) অভাব অভিযোগ এমন একটি সমস্যা যা অন্যের কাছে না বলাই ভালো – পিথাগোরাস । 4) আমাকে একটি শিক্ষিত মা দাও , আমি তোমাকে শিক্ষিত জাতি দেব- নেপোলিয়ন বোনাপার্ট । 5) আমরা জীবন থেকে শিক্ষা গ্রহন করি না বলে আমাদের শিক্ষা পরিপূর্ণ হয় না – শিলার । 6) উপার্জনের চেয়ে বিতরণের মাঝেই বেশী সুখ নিহিত – ষ্টিনা। 7) একজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি আরেকজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি কে জাগ্রত করতে পারে না- শেখ সাদী । 8) একজন দরিদ্র লোক যত বেশী নিশ্চিত , একজন রাজা তত বেশী উদ্বিগ্ন – জন মেরিটন। 9) একজন মহান ব্যাক্তির মতত্ব বোঝা যায় ছোট ব্যাক্তিদের সাথে তার ব্যবহার দেখে – কার্লাইন । 10) একজন মহিলা সুন্দর হওয়ার চেয়ে চরিত্রবান হওয়া বেশী প্রয়োজন – লং ফেলো। 11) কাজকে ভালবাসলে কাজের মধ্যে আনন্দ পাওয়া যায় – আলফ্রেড মার্শা
  • Pages

    লেখনীর সূত্রপাত শুরু এখান থেকে

    পবিত্র অপরাহ্নে ---------মুনা চৌধুরী

            পবিত্র অপরাহ্নে
    ---------মুনা চৌধুরী



    জেনে গেছে, জেনে গেছে ওরা
    আরো জেনে যাবে একে একে সবাই
    বৃশ্চিক প্রণয়!

    দংশনে বিষমাখা নীল হয়ে, কলঙ্ক মেখে শরীরে
    আধো ঘুমে, আধো জাগরণে
    মৃন্ময়ী আমি মৃৎপাত্রের মতো ভাঙতে থাকি চুর চুর!

    বরেন্দ্র রাঢ়ে, নীলজলে সমতটে
    সাঁওতাল, কাল, ভিল, নমশূদ্র সব বন্ধু আমার
    জল চোখে বলে
    'অমরত্ব এনে দেব, শুধু বিসর্জন দাও তাকে'।

    যে মাটি লালন করেছে আমারে
    সেই শুধু বোঝে
    ভালোবেসে চৌচির হয়ে রয় .....

    কোনো এক অচিহ্নিত সময়ে, কোনো এক পবিত্র অপরাহ্নে
    আমি ওতে পূর্ণগ্রাস হব বলে । 


     http://www.alokrekha.com

    12 comments:

    1. কবিতা রায়December 18, 2018 at 4:38 PM

      প্রেম বা প্রণয় স্বাভাবিক আত্মিক বিষয়। আমাদের জীবনে কম বেশি সবাই এর পরিচয়ে পরিচিত। কিন্তু কবি মুনা চৌধুরী যেভাবে এই প্রণয়কে ভেঙে চুরে আমার গড়েছেন তা প্রশংসার দাবিদার। খুব ভালো লাগলো কবিতাটা পরে এ যেন আমার জীবনের কাছাকাছি। অনেক ভালো বাসা কবি।

      ReplyDelete
      Replies
      1. অনেক ধন্যবাদ ও শুভকামনা.

        Delete
    2. মিতালী দত্ত গুপ্তDecember 18, 2018 at 4:54 PM

      কবি আর সাধারণ মানুষের মাঝে পার্থক্য বিরল। শুধু তাঁরা মনের কথা কইতে পারেন। আমরা অনুভুব করি। অভিজ্ঞতার ভেতর দিয়ে যাই কিন্তু প্রকাশ করার ভাষা জানা নেই। বশ্চিক প্রণয় ! প্রণয়কে বর্ণনা করার এর থেকে দারুন শব্দাবলী হয় না। এ বৃশ্চিক প্রণয় দংশনে বিষমাখা নীল হই , কলঙ্ক মাখে গায়ে মৃৎপাত্রের মতো ভাঙতে থাকি চুর চুর! তবুও ছাড়তে পারিনা ভালোবেসে মিলে মিশে একাকার হয়ে যাই। এই হল প্রণয় ! দারুন বলেছেন কবি।

      ReplyDelete
    3. কাম্রুজ্জামান হীরাDecember 18, 2018 at 5:07 PM

      'বরেন্দ্র ও রাঢ়ে, নীলজলে ও সমতটে
      সাঁওতাল, কাল, ভিল, নমশূদ্র সব বন্ধু আমার
      জল চোখে বলে
      'অমরত্ব এনে দেব, শুধু বিসর্জন দাও তাকে'।" কবির হৃদয় নিংড়ানো অনুভূতির কি গভীর প্রকাশ।গহীন জগতে কখনো শান্ত যদি আবার কখনো জোয়ার ভাটায় আবার খরস্রোতা মৃৎপাত্রের মত আঁকড়ে ধরে.কবির অভিমানী চেতনার অভিব্যক্তি এই কবিতা। নিদারুন একটা কবিতা। অনেক শুভেচ্ছা কবি

      ReplyDelete
    4. মিনহাজ রহমানDecember 18, 2018 at 5:38 PM

      প্রেমের এমন গভীর ভাবনা, প্রতিফলন ও তার অভিব্যক্তির প্রকাশ।যেমন বিষয় বস্তু, তেমনি চমৎকার ভাষাভাব অপূর্ব ও শব্দচয়ন ও রচনা শৈলী মিলিয়ে অনবদ্য ও অনিন্দ্য এক কবিতা। বড্ডো ভালো। অনেক ভালোবাসা কবি।

      ReplyDelete
    5. প্রশংসাবাদী কবিতা ! অপূর্ব। । সুন্দর ! একটা চমৎকার কবিতা ! জীবনের এমন ভাবনা, প্রতিফলন প্রশংশার দাবিদার । অনিন্দ্য এক কবিতা। বড্ডো ভালো। অনেক ভালোবাসা কবি।

      ReplyDelete
    6. রেজা আমিনDecember 18, 2018 at 7:35 PM

      পবিত্র অপরাহ্নে কবি মুনা চৌধুরী শক্তিশালী কবি হিসাবে তেমনি কবিতার বিষয় ও প্রতিটি শব্দ শক্তিমান। কবির এই মিশ্র প্রতিক্রিয়া আমাদেরকে নিয়ে গেছে আপন ভুবনে। অনেক অনেক ভালো লাগলো এই উচ্চমানের কবিতা পড়ে। ভালোবাসা কবিকে

      ReplyDelete
    7. দূর্বা দাসDecember 18, 2018 at 7:52 PM

      পবিত্র অপরাহ্নে" কবি মুনা চৌধুরীর শক্তিশালী কবিতার বিষয় ও প্রতিটি শব্দ শক্তিমান। অনেক অনেক ভালো লাগলো এই উচ্চমানের কবিতা পড়ে। প্রনয়ের সাথে বৃশ্চিকের তুলনা অভিনব কোন বিষয় না . প্রেমের ক্ষেত্রে যেমন আদর আছে তেমনি আছে দংশন নীল কষ্টের। কবি এখানে সুন্দর করে ব্যক্ত করেছেন।

      ReplyDelete
    8. মিতা হকDecember 18, 2018 at 8:09 PM

      'অমরত্ব এনে দেব, শুধু বিসর্জন দাও তাকে'।"পবিত্র অপরাহ্নে" কবি মুনা চৌধুরীর কবিতায় এই পংতি হৃদয় ভেদি। বিসর্জন দিতে বললেই কি দেওয়া যায় ? আরো আষ্টে পিষ্টে জড়িয়ে ধরে। কবি হৃদয় দিয়ে এই কবিতার প্রতিটি শব্দের মালা গেঁথেছেন। দারুন অনবদ্য কবিতা। অনেক ভালোবাসা কবি মুনা চৌধুরী।

      ReplyDelete
    9. মেধা বন্দ্যোপাধ্যায়December 18, 2018 at 8:31 PM

      "পবিত্র অপরাহ্নে" কবি মুনা চৌধুরীর কবিতা যেন আমার জীবনের কথা ওঠা আমাদের মেয়েদের কথা। ভালবাসি অথচ কেউ জেনে যাবে তা নিয়ে সর্বদা ভয় ভয় থাকি। আমরা শত দংশনে নীল হয়ে যায় কষ্টের অতল তলে। আমরা মাটির পাত্রের মত ভেঙে ছুড়ে আবার মাটিতেই মিশে যাই বুকে নিয়ে সমস্ত গুপ্ত, নিগূঢ় , নিভৃত কষ্ট। দারুন লেখা কবিতা। যত প্রশংসা করি কম। মনটা বিভোর হল ব্যাথায়। অনেক ভালো লাগলো। অনেক ভালোবাসা। ভালো থাকবেন আরো কবিতা পাবার আশায় রইলাম। শুভেচ্ছা।

      ReplyDelete
    10. হেলাল শফিকDecember 18, 2018 at 8:42 PM

      "পবিত্র অপরাহ্নে" কবি মুনা চৌধুরীর কবিতায় উত্কৃষ্ট চমৎকার জীবন বোধের প্রকাশ।অপূর্ব বিষয় বস্তু,ভাষাভাব ও শব্দচয়ন ও রচনা শৈলী মিলিয়ে অনবদ্য ও অনিন্দ্য এক কবিতা।

      ReplyDelete
    11. আলোকরেখায় এটা আমার প্রথম কবিতা. যদিও আমার উপন্যাস "শুভাশীষ কে চিঠি'" অনেকে পড়ছেন . নতুন লেখক হিসেবে আমাকে আপনাদের একজন করে নেবার জন্য আপনাদের সবাইকে অনেক ধন্যবাদ ও শুভকামনা.

      ReplyDelete

    অনেক অনেক ধন্যবাদ