আলোকের এই ঝর্নাধারায় ধুইয়ে দাও -আপনাকে এই লুকিয়ে-রাখা ধুলার ঢাকা ধুইয়ে দাও-যে জন আমার মাঝে জড়িয়ে আছে ঘুমের জালে..আজ এই সকালে ধীরে ধীরে তার কপালে..এই অরুণ আলোর সোনার-কাঠি ছুঁইয়ে দাও..আমার পরান-বীণায় ঘুমিয়ে আছে অমৃতগান-তার নাইকো বাণী নাইকো ছন্দ নাইকো তান..তারে আনন্দের এই জাগরণী ছুঁইয়ে দাও নির্বাসন --------------------- © সুনীতি দেবনাথ ~ alokrekha আলোক রেখা
1) অতি দ্রুত বুঝতে চেষ্টা করো না, কারণ তাতে অনেক ভুল থেকে যায় -এডওয়ার্ড হল । 2) অবসর জীবন এবং অলসতাময় জীবন দুটো পৃথক জিনিস – বেনজামিন ফ্রাঙ্কলিন । 3) অভাব অভিযোগ এমন একটি সমস্যা যা অন্যের কাছে না বলাই ভালো – পিথাগোরাস । 4) আমাকে একটি শিক্ষিত মা দাও , আমি তোমাকে শিক্ষিত জাতি দেব- নেপোলিয়ন বোনাপার্ট । 5) আমরা জীবন থেকে শিক্ষা গ্রহন করি না বলে আমাদের শিক্ষা পরিপূর্ণ হয় না – শিলার । 6) উপার্জনের চেয়ে বিতরণের মাঝেই বেশী সুখ নিহিত – ষ্টিনা। 7) একজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি আরেকজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি কে জাগ্রত করতে পারে না- শেখ সাদী । 8) একজন দরিদ্র লোক যত বেশী নিশ্চিত , একজন রাজা তত বেশী উদ্বিগ্ন – জন মেরিটন। 9) একজন মহান ব্যাক্তির মতত্ব বোঝা যায় ছোট ব্যাক্তিদের সাথে তার ব্যবহার দেখে – কার্লাইন । 10) একজন মহিলা সুন্দর হওয়ার চেয়ে চরিত্রবান হওয়া বেশী প্রয়োজন – লং ফেলো। 11) কাজকে ভালবাসলে কাজের মধ্যে আনন্দ পাওয়া যায় – আলফ্রেড মার্শা
  • Pages

    লেখনীর সূত্রপাত শুরু এখান থেকে

    নির্বাসন --------------------- © সুনীতি দেবনাথ

      












    নির্বাসন
    ---------------------
    ©
    সুনীতি দেবনাথ
    আমাকে চৌদ্দ বৎসর নয় চৌদ্দ মিনিটের
    নির্বাসন দিয়ো না হে জীবন
    প্রতিটি মিনিট বহুবর্ণ বাহারি
    তাই বেঁচে যেতে চাই দেখে যেতে চাই
    তোমার মহিমান্বিত পতন উত্থান
    শৈলশিখরে কবোষ্ণ আলোকচ্ছটা
    ছলকে ছিটকে যায় আলোকবর্ষের সীমানা
    ভেঙেচুরে কোন অভিনব অনাবিষ্কৃত
    অন্যলোকের আরেক মহা জ্যোতিষ্ক অভিমুখে
    আমি সেই মহাসঙ্গমে আলোস্নান করতে চাই
    যারা গেছে বন্ধন ছিঁড়ে যাক না

    নবীন বর্ণিল ডানা মেলে
    সেই অচেনা পাখি শিস দিক তীক্ষ্ণতায়
    আমার এই ক্ষুদ্র পঙ্কিল অঙ্গনে
    আমি মুহূর্তে যা পাইনি তার বেদনা ভুলে
    জীবন তোমাকে স্পর্শহীন আকুলতাহীন
    নিস্পৃহ আকাঙ্ক্ষায় সৃজনের মাঝে
    সীমাহীনতায় চেয়ে যাবো
    অবশেষে নির্বাসনের দিন আসবেই
    কলকল্লোলিত অজানা অন্ধকারে
    বহু বহু বিষাক্ত সর্পিল বেদনার পথে
    আমি কুণ্ঠিত হবোনা দু ' হাত বাড়িয়ে দেবো
    শুধু আরো কিছু কবিতার পঙক্তি
    দ্যুতিময় অন্তরের গভীর থেকে
    উচ্চারণ করে নিতে দাও
    এখনো যা উচ্চারণ বহির্ভূত
    এখনো যা প্রতীক্ষা বিহ্বল
    বিশ্বময় ছড়াতে ব্যাকুল
    তারপর নির্বাসন দিয়ো ক্ষতি নেই।

     http://www.alokrekha.com

    5 comments:

    1. মিতালি সেনDecember 4, 2019 at 4:07 PM

      সুনীতি দেবনাথের নির্বাসন কবিতাটা পড়ে খুব ভালো লাগলো। কবি এখানে নির্বাসনে যেতে চান না। আমরা কেউ চৌদ্দ বৎসর নয় চৌদ্দ মিনিটের জন্য এই সুন্দর মায়াময় নির্বাসনে যেতে চাই না। শৈলশিখরে কবোষ্ণ আলোকচ্ছটা
      ছলকে ছিটকে যায় আলোকবর্ষের সীমানা ভেঙেচুরে কোন অভিনব অনাবিষ্কৃত অন্যলোকের আরেক মহা জ্যোতিষ্ক অভিমুখে আমরা সেই মহাসঙ্গমে আলোস্নান করতে চাই। অনেক অনেক শুভ কামনা কবি।

      ReplyDelete
    2. শফিক রেহানDecember 4, 2019 at 4:11 PM

      সুনীতি দেবনাথের নির্বাসন কবিতাটা পড়ে খুব ভালো লাগলো। কবি এখানে নির্বাসনে যেতে চান না। দারুন অনবদ্য কবিতা বরাবরের মতই! অপূর্ব ভাব ! অনন্য উপমা! শব্দের মুক্তা মালা!আবাহন আলোর নতুন দিনের! অনেক সুন্দর কবিতা! শুভেচ্ছা রইল!

      ReplyDelete
    3. সীমা চক্রবর্তীDecember 4, 2019 at 4:16 PM

      সুনীতি দেবনাথের নির্বাসন কবিতাটা পড়ে খুব ভালো লাগলো। দারুন অনবদ্য কবিতা ! অপূর্ব ভাব ! অনন্য উপমা! শব্দের মুক্তা মালা! কবি এখানে নির্বাসনে যেতে চান না। দেখে যেতে চায় কবি বহুবর্ণ বাহারি মহিমান্বিত পতন উত্থান। অনেক সুন্দর কবিতা! শুভেচ্ছা রইল!

      ReplyDelete
    4. অমর্ত্য ব্যানার্জিDecember 4, 2019 at 4:38 PM

      সুনীতি দেবনাথের নির্বাসন কবিতাটা পড়ে খুব ভালো লাগলো। অপূর্ব ভাব ! অনন্য উপমা! দারুন অনবদ্য কবিতা!সুনীতি দেবনাথের লেখা আমার খুব ভালো লাগে। আগেও অন্য ওয়েব সাইটে ওনার কবিতা পড়েছি। অন্য ধারার কবি তিনি। অনেক শুভ কামনা কবি।

      ReplyDelete
    5. রেখা সরকারDecember 4, 2019 at 5:18 PM

      সুনীতি দেবনাথের নির্বাসন কবিতাটা খুব ভালো লাগলো পড়ে। অনন্য উপমা! দারুন অনবদ্য কবিতা ! যেখানে কবি বলছেন তিনি নির্বাসনে যেতে চান না আবার তিনি বলছেন অবশেষে নির্বাসনের দিন আসবেই কলকল্লোলিত অজানা অন্ধকারে বহু বহু বিষাক্ত সর্পিল বেদনার পথে
      আমি কুণ্ঠিত হবোনা দু ' হাত বাড়িয়ে দেবো শুধু আরো কিছু কবিতার পঙক্তি
      দ্যুতিময় অন্তরের গভীর থেকে উচ্চারণ করে নিতে দাও এখনো যা উচ্চারণ বহির্ভূত এখনো যা প্রতীক্ষা বিহ্বল বিশ্বময় ছড়াতে ব্যাকুল তারপর নির্বাসন দিয়ো ক্ষতি নেই।

      ReplyDelete

    অনেক অনেক ধন্যবাদ