আলোকের এই ঝর্নাধারায় ধুইয়ে দাও -আপনাকে এই লুকিয়ে-রাখা ধুলার ঢাকা ধুইয়ে দাও-যে জন আমার মাঝে জড়িয়ে আছে ঘুমের জালে..আজ এই সকালে ধীরে ধীরে তার কপালে..এই অরুণ আলোর সোনার-কাঠি ছুঁইয়ে দাও..আমার পরান-বীণায় ঘুমিয়ে আছে অমৃতগান-তার নাইকো বাণী নাইকো ছন্দ নাইকো তান..তারে আনন্দের এই জাগরণী ছুঁইয়ে দাও কথোপকথন ---------------- মুনা চৌধুরী ~ alokrekha আলোক রেখা
1) অতি দ্রুত বুঝতে চেষ্টা করো না, কারণ তাতে অনেক ভুল থেকে যায় -এডওয়ার্ড হল । 2) অবসর জীবন এবং অলসতাময় জীবন দুটো পৃথক জিনিস – বেনজামিন ফ্রাঙ্কলিন । 3) অভাব অভিযোগ এমন একটি সমস্যা যা অন্যের কাছে না বলাই ভালো – পিথাগোরাস । 4) আমাকে একটি শিক্ষিত মা দাও , আমি তোমাকে শিক্ষিত জাতি দেব- নেপোলিয়ন বোনাপার্ট । 5) আমরা জীবন থেকে শিক্ষা গ্রহন করি না বলে আমাদের শিক্ষা পরিপূর্ণ হয় না – শিলার । 6) উপার্জনের চেয়ে বিতরণের মাঝেই বেশী সুখ নিহিত – ষ্টিনা। 7) একজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি আরেকজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি কে জাগ্রত করতে পারে না- শেখ সাদী । 8) একজন দরিদ্র লোক যত বেশী নিশ্চিত , একজন রাজা তত বেশী উদ্বিগ্ন – জন মেরিটন। 9) একজন মহান ব্যাক্তির মতত্ব বোঝা যায় ছোট ব্যাক্তিদের সাথে তার ব্যবহার দেখে – কার্লাইন । 10) একজন মহিলা সুন্দর হওয়ার চেয়ে চরিত্রবান হওয়া বেশী প্রয়োজন – লং ফেলো। 11) কাজকে ভালবাসলে কাজের মধ্যে আনন্দ পাওয়া যায় – আলফ্রেড মার্শা
  • Pages

    লেখনীর সূত্রপাত শুরু এখান থেকে

    কথোপকথন ---------------- মুনা চৌধুরী

     কথোপকথন
    মুনা চৌধুরী


    : একটু শোনো
    কথা আছে তোমার সঙ্গে  
    সত্যি বলো তো কেন বললে
    আমায় দেবার মতো কিছুই নেই তোমার ?

    : হাসছো যে ?
    সবই তো দিলে, বাকি রাখলে কি ?
    এই যে রবিঠাকুরের গান শোনালে গোটাদশেক
    সেদিন Morissey আবৃত্তি করলে,
    "The heart knows why I grieve
    And yes one day I will close my eyes forever
    But I will see you in far off places”

    : ভুলে গেলে প্রথম বিকেলে
    আমায় যেভাবে জড়িয়ে ধরেছিলে
    আর থরথর করে কাঁপছিলে ?

    : বুদ্ধু কোথাকার !
    সেকি মনে নেই দীঘির ধারে কাশবনে
    আমায় ইচ্ছে মতো খেলে নিলে সেদিন ?

    : কি বললে ?
    হৃদয় তোমার শূন্য মরুভূমি ?
    শুকনো, শূন্য, নিস্তব্ধ-
    empty and nothing to pour ?

    : অবাক করলে !
    আমি এসে জল ঢেলে কানায় কানায়
    ভরিয়ে দেব
    anytime, anywhere, any moment ....

    : লক্ষী সোনা আমার
    মন দিয়ে ফেলছো আমায় ?
    তবে বলি শোনো
    straight cut
    আমি তোমায় ভালোবাসি

    তুমি বললে 'হুম ম ম ম'            তারপর শুধুই নিস্তব্ধতা ...

    - মিষ্টি আতরের গন্ধ
    - ধবধবে সাদা কাপড়
    - চোখের নোনা জল
    - চিৎকার, কান্না, উন্মাদনা
    - কেঁচো, পিঁপড়ে, আর গুবরে পোকার দল
    ওরা সবাই আঁকড়ে ধরে রেখেছে অধরা কফিনটা    

     http://www.alokrekha.com

    7 comments:

    1. লেখাটা পড়ে খুব ভালো লাগলো। অনন্য শব্দের বিনুনি। চমৎকার ভাব বিষয় ।প্রেমময় কবিতা। দারুন আবাহন। প্রেমের কথোপথন। এক কথায় নন্দিত। আন্তরিক কবি মুনা চৌধরী।

      ReplyDelete
    2. শামীম আহমেদFebruary 9, 2020 at 3:32 PM

      কবি এখানে বড় বেশি নিষ্ঠুর। ভালোবাসার কথোপথন" straight cut
      আমি তোমায় ভালোবাসি ".শেষে মৃত্যুর এই ঘন্টা বড়ই বেহাগ রাগে বাজে। বুকটা ভারী হয়ে উঠলে অন্তে। খুব সুন্দর লেখা। .ভালোভাসা !

      ReplyDelete
    3. শর্মিষ্ঠা ব্যানার্জিFebruary 9, 2020 at 3:45 PM

      কবি মুনিরা চৌধুরী এই কথোপকথনে বুঝিয়ে দিয়েছেন যারা ভালোবাসায় বলে -"আমায় দেবার মতো কিছুই নেই তোমার ?" কি বোকার মত কথা। যে হৃদয় দিয়ে দিয়েছে আর কি দেবার আছে ? কবি দারুন ভাবে তা অংকিত করেছেন। খুব ভালো লাগার একটা কবিতা। ভালো থাকবেন কবি। অনেক শুভ কামনা।

      ReplyDelete
    4. মোহন সিরাজীFebruary 9, 2020 at 4:22 PM

      সবই তো দিল, বাকি রাখল না কিছুই রবিঠাকুরের গান শোনালো Morissey আবৃত্তি করল। প্রথম বিকেলে যেভাবে জড়িয়ে ধরেছিল আর থরথর করে কাঁপছিল দীঘির ধারে কাশবনে ইচ্ছে মতো খেলে নিল সেদিন। এত কিছু দিয়ে ভরিয়ে দিয়ে -পরিপূর্ন করে কি আর বলা যায় তোমাকে দেবার মোট আমার কিছুই নেই। কি বোকার মত কথা জেক সর্বস্ব বিলিয়ে দিলে তাকে আর কি দেবার আছে ? কবি মুনা চৌধুরী এত অনন্য ভাবে এই ব্যাপারটা উত্থাপন করে যা প্রশংসার যোগ্য। শুভেচ্ছা নিরন্তর।

      ReplyDelete
    5. প্রেমের কথোপকথন মনটা আনন্দে উদ্বেলিত উচ্ছলিত। কিন্তু শেষের দিকে আসতেই মনটা কষ্টে ভোরে গেল। সব প্রেমের পরিণতি মৃত্যুর কেন হয়। কেন মিষ্টি আতরের গন্ধ, ধবধবে সাদা কাপড়,চোখের নোনা জল ,কান্না, কেন কেন এই সব আসে প্রতিটি বিশ্ব প্রেমে --বড় বড় প্রেম কথায়। খুব ভালো কবিতা। ভালো থাকবেন !

      ReplyDelete
    6. সর্বজন বিবেচিত পৃথিবীর সেরা পাঁচটি ছোট গল্পের মান বিচারে যে উপাদানগুলোকে সৃষ্ট সাহিত্যকর্মের চমৎকারিত্ব, কাঠামোগত সৌন্দর্য্য ও ভাবের গভীরতার মাপকাঠি হিসেবে নির্বাচিত করা হয়েছে তার মধ্যে একটি বিশেষ উপাদান হলো, গল্পের স্বতঃস্ফূর্ততা - পড়া শুরু করার সাথে সাথে গল্পের মূল বিষয় পাঠককে তরতর করে নিয়ে যাবে তারপর আর তারপরের দিকে! কিন্তু এই তরতরিয়ে এগিয়ে যাওয়া গল্পে মগ্ন পাঠক কোন মতেই ঠাহর করতে পারবেনা না যে এই একটু পরেই শেষের প্যারায়, শেষের লাইনে পাঠককে আচমকা বিদ্যুৎপৃষ্ট করার মত একটা কিছু সযতনে সাজানো আছে ! মুনা চৌধুরীর "কথোপকথন" পড়তে গিয়ে ওই রকমের একটা বিদ্যুৎপৃষ্ট ভালোলাগা পৃথিবী বিখ্যাত সেরা ছোটগল্পের উপাদানের কথা মনে করিয়ে দিল।

      ReplyDelete
    7. ‘Life is like a box of chocolate, you never know what you’re gonna get’ !! ঠিক এভাবেই যেন জীবনের এই গোধূলীতে এসে অপ্রত্যাশিতভাবে অনেক কিছু পেয়ে গেলাম । পড়ন্ত বেলায় হলেও, একদল পাঠক আমাকেও আচমকা বিদ্যুৎপৃষ্ঠের মতো যেন তাদের ভালোবাসা দিয়ে ঝাকিয়ে দিয়ে গেলেন । আপনাদের সবাইকে মূল্যবান মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ । অনেক ভালো থাকবেন ।

      ReplyDelete

    অনেক অনেক ধন্যবাদ