আলোকের এই ঝর্নাধারায় ধুইয়ে দাও -আপনাকে এই লুকিয়ে-রাখা ধুলার ঢাকা ধুইয়ে দাও-যে জন আমার মাঝে জড়িয়ে আছে ঘুমের জালে..আজ এই সকালে ধীরে ধীরে তার কপালে..এই অরুণ আলোর সোনার-কাঠি ছুঁইয়ে দাও..আমার পরান-বীণায় ঘুমিয়ে আছে অমৃতগান-তার নাইকো বাণী নাইকো ছন্দ নাইকো তান..তারে আনন্দের এই জাগরণী ছুঁইয়ে দাও বিশুদ্ধ ম্যাগনোলিয়া-------মুনা চৌধুরী ~ alokrekha আলোক রেখা
1) অতি দ্রুত বুঝতে চেষ্টা করো না, কারণ তাতে অনেক ভুল থেকে যায় -এডওয়ার্ড হল । 2) অবসর জীবন এবং অলসতাময় জীবন দুটো পৃথক জিনিস – বেনজামিন ফ্রাঙ্কলিন । 3) অভাব অভিযোগ এমন একটি সমস্যা যা অন্যের কাছে না বলাই ভালো – পিথাগোরাস । 4) আমাকে একটি শিক্ষিত মা দাও , আমি তোমাকে শিক্ষিত জাতি দেব- নেপোলিয়ন বোনাপার্ট । 5) আমরা জীবন থেকে শিক্ষা গ্রহন করি না বলে আমাদের শিক্ষা পরিপূর্ণ হয় না – শিলার । 6) উপার্জনের চেয়ে বিতরণের মাঝেই বেশী সুখ নিহিত – ষ্টিনা। 7) একজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি আরেকজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি কে জাগ্রত করতে পারে না- শেখ সাদী । 8) একজন দরিদ্র লোক যত বেশী নিশ্চিত , একজন রাজা তত বেশী উদ্বিগ্ন – জন মেরিটন। 9) একজন মহান ব্যাক্তির মতত্ব বোঝা যায় ছোট ব্যাক্তিদের সাথে তার ব্যবহার দেখে – কার্লাইন । 10) একজন মহিলা সুন্দর হওয়ার চেয়ে চরিত্রবান হওয়া বেশী প্রয়োজন – লং ফেলো। 11) কাজকে ভালবাসলে কাজের মধ্যে আনন্দ পাওয়া যায় – আলফ্রেড মার্শা
  • Pages

    লেখনীর সূত্রপাত শুরু এখান থেকে

    বিশুদ্ধ ম্যাগনোলিয়া-------মুনা চৌধুরী

    বিশুদ্ধ ম্যাগনোলিয়া
    মুনা চৌধুরী

    ক্লাসের বন্ধুবান্ধব সবাই ভাবতো আমি এক বিশুদ্ধ ম্যাগনোলিয়া, যা খাঁটি এবং অসামান্য l মানুষটাও তাই ভাবতো l যেদিন প্রথম ওর সাথে দেখা, নাকের ডগায় চশমা রেখে ও আড়চোখে আমাদের দেখছিলো আপাদমস্তক l সেদিন কি যেন একটা হয়ে গেছিলো আমার ভেতর, সাহিত্য ক্লাসে যেটাকে জেনেছিলাম intuition বলে l ওকে দেখেছিলাম খুব কাছের কোনো মানুষ হয়ে, খুব কাছের কোনো ভবিষ্যতে l
    কষ্টগুলো যখন বেড়ে উঠছিলো, থাকতে না পেরে একদিন ওকে সব বলেই ফেললাম l তখন আমার পৃথিবী ছিল বড়োই অস্থির, যেন বন্দুক হাতে ছুটছে ঠান্ডা মাথায় কোনো এক সিরিয়াল কিলার l ও অবাক হলো না, বরং বললো: opposites attract. আমায় ভালোবেসে ও ডাকতো 'Angel in white wings’ আর আমি ওকে ডাকতাম ‘Devil in ebony dark’ l মনে পড়ে যখনি জিজ্ঞেস করতাম দিনটা কেমন কেটেছে ও হেসে বাইবেলের দুটো লাইন আওড়াতো:
    No rest for the wicked
    No prayer for the dying

    দিনগুলো আমাদের কাটলো, আর জন্ম নিলো প্রেম আর ঘৃণার এক ঘনিষ্ঠ সখ্যতা l

    এখন আমাদের আর দেখা হয় না l তবে মাঝে মাঝে দেখা হয়ে যায় বই এর দোকানে, উৎসবের রাতে সমাজ সজ্জায় অথবা কোনো মিটিং কনফারেন্সে l ছুরিতে শান দিতে দিতে আমায় ও ভরাট গলায় জিজ্ঞেস করে: ভালো তো? খুব নির্ভুল, পরিচ্ছন্ন, সাবধানী, কন্ঠে - তুমি আপনি কোনো সম্বোধন ছাড়াই l
    তখন আমার ভেতর বয়ে যায় ঠান্ডা এক ভয়ংকর ঝড় l



     http://www.alokrekha.com

    8 comments:

    1. ড: অজিত গুহMarch 28, 2020 at 3:26 PM

      ম্যাগনোলিয়া নির্মল পবিত্র বিশুদ্ধ।ওদের ভালোবাসাও শুভ্র সুন্দর। খুব ভালো লাগলো মুনা চৌধুরীর এই আত্ম কথন। যেন রূপকথার গল্প পড়ছি। অনেক অনেক ভালোবাসা কবি।

      ReplyDelete
    2. শর্মিষ্ঠাMarch 28, 2020 at 3:51 PM

      মুনা চৌধুরীর বিশুদ্ধ ম্যাগনোলিয়া কবির হৃদয় নিংড়ানো অনুভূতির কি গভীর প্রকাশ।গহীন জগতে কখনো শান্ত যদি আবার কখনো জোয়ার ভাটায় কবির কথোপকোথন নিজস্ব স্বীকারোক্তি কবির অভিমানী চেতনার অভিব্যক্তি এই কবিতা। নিদারুন একটা কবিতা। অনেক শুভেচ্ছা কবি।

      ReplyDelete
    3. মোহন রায়হানMarch 28, 2020 at 4:52 PM

      মুনা চৌধুরীর বিশুদ্ধ ম্যাগনোলিয়া অনিন্দ্য এক কবিতা। আজকাল আমরা আমরা অপেক্ষায় থাকি কবি মুনা চৌধুরীর কবিতার জন্য। মনটা ভরিয়ে দিল। দারুন অনুভূতি কবিতা বার বার পড়তে ইচ্ছে করে। ! আলোকরেখাকে ও কবি মুনা চৌধুরীকে অনেক ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা ।

      ReplyDelete
    4. অজয় দেবMarch 28, 2020 at 4:58 PM

      "দিনগুলো আমাদের কাটলো, আর জন্ম নিলো প্রেম আর ঘৃণার এক ঘনিষ্ঠ সখ্যতা " l কি নিদারুন কথাগুলো। প্রাণের গভীরে এসে লাগে। মুনা চৌধুরীর বিশুদ্ধ ম্যাগনোলিয়া এক অনবদ্য কবিতা। খুব ভালো লাগলো। শুভ কামনা কবি।

      ReplyDelete
    5. মিতা রহমানMarch 28, 2020 at 6:07 PM

      মুনা চৌধুরীর বিশুদ্ধ ম্যাগনোলিয়া এক অনবদ্য। দারুন কবিতা বরাবরের মতই! অপূর্ব ভাব ! অনন্য উপমা! শব্দের মুক্তা মালা!আবাহন আলোর নতুন দিনের! অনেক সুন্দর কবিতা! শুভেচ্ছা রইল!

      ReplyDelete
    6. প্রকাশের কেমন যেন একটা তাড়া, গুছিয়ে বলার সময় নেই, কাল সকালের দ্রুতযানের আগেই জানাতে হবে - "তুমি আমার এক নম্বরের শত্তুর! মুনা চৌধুরীর "বিশুদ্ধ ম্যাগনোলিয়া" পড়ে আমার এই রকমটা মনে হয়েছে!

      তবে লেখাটির সারাটা অঙ্গ জুড়ে ম্যাগনোলিয়ার স্বেত-শুভ্র, পুত -পবিত্র সৌম্যতার একটা উপস্থিতি উপলব্ধিতে টোকা দিয়েছে। সেইসাথে মস্তিষ্কের স্মৃতির গুদাম থেকে নাসারন্ধ্রে সরবরাহ হয়েছে ম্যাগনোলিয়ার মোহনীয় সুবাস!

      ReplyDelete
    7. মুনা চৌধুরীর 'বিশুদ্ধ ম্যাগনোলিয়া' পড়ে মনে হলো পুরো কবিতাটা নিলিশ্বরীর অভিমান কেননা শুভাশীষ ওর স্বভাবগত কারণে বেয়ারা! ওদের এই মান অভিমান তাই চলতেই থাকে আর একারণেই ওদের গল্পের কোনো শেষ হয় না!!

      ReplyDelete
    8. "শুভাশীষ কে চিঠি' উপন্যাসটা একটা fiction, 'বিশুদ্ধ ম্যাগনোলিয়া' কবিতাটাও fiction। তবে কবি হিসেবে আমি আনন্দিত যদি এই কবিতাকে কোনো পাঠক ভাবেন এটা non-fiction কেননা এর অর্থ কবিতাটা পাঠকের কাছে ধ্রুব সত্য বলে মনে হয়েছে। লেখক বা কবি হিসেবে এখানে আমার সার্থকতা; সেইসাথে আরেকটা কথাও বলবো, 'বিশুদ্ধ ম্যাগনোলিয়া' কবিতাটা 'শুভাশীষ কে চিঠির' অন্তর্ভুক্ত নয়, এটা একটা স্বতন্ত্র কবিতা। পাঠকদের সবাইকে তাদের মূল্যবান মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

      ReplyDelete

    অনেক অনেক ধন্যবাদ