আলোকের এই ঝর্নাধারায় ধুইয়ে দাও -আপনাকে এই লুকিয়ে-রাখা ধুলার ঢাকা ধুইয়ে দাও-যে জন আমার মাঝে জড়িয়ে আছে ঘুমের জালে..আজ এই সকালে ধীরে ধীরে তার কপালে..এই অরুণ আলোর সোনার-কাঠি ছুঁইয়ে দাও..আমার পরান-বীণায় ঘুমিয়ে আছে অমৃতগান-তার নাইকো বাণী নাইকো ছন্দ নাইকো তান..তারে আনন্দের এই জাগরণী ছুঁইয়ে দাও বালকের বাস ......... মুনা চৌধুরী ~ alokrekha আলোক রেখা
1) অতি দ্রুত বুঝতে চেষ্টা করো না, কারণ তাতে অনেক ভুল থেকে যায় -এডওয়ার্ড হল । 2) অবসর জীবন এবং অলসতাময় জীবন দুটো পৃথক জিনিস – বেনজামিন ফ্রাঙ্কলিন । 3) অভাব অভিযোগ এমন একটি সমস্যা যা অন্যের কাছে না বলাই ভালো – পিথাগোরাস । 4) আমাকে একটি শিক্ষিত মা দাও , আমি তোমাকে শিক্ষিত জাতি দেব- নেপোলিয়ন বোনাপার্ট । 5) আমরা জীবন থেকে শিক্ষা গ্রহন করি না বলে আমাদের শিক্ষা পরিপূর্ণ হয় না – শিলার । 6) উপার্জনের চেয়ে বিতরণের মাঝেই বেশী সুখ নিহিত – ষ্টিনা। 7) একজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি আরেকজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি কে জাগ্রত করতে পারে না- শেখ সাদী । 8) একজন দরিদ্র লোক যত বেশী নিশ্চিত , একজন রাজা তত বেশী উদ্বিগ্ন – জন মেরিটন। 9) একজন মহান ব্যাক্তির মতত্ব বোঝা যায় ছোট ব্যাক্তিদের সাথে তার ব্যবহার দেখে – কার্লাইন । 10) একজন মহিলা সুন্দর হওয়ার চেয়ে চরিত্রবান হওয়া বেশী প্রয়োজন – লং ফেলো। 11) কাজকে ভালবাসলে কাজের মধ্যে আনন্দ পাওয়া যায় – আলফ্রেড মার্শা
  • Pages

    লেখনীর সূত্রপাত শুরু এখান থেকে

    বালকের বাস ......... মুনা চৌধুরী




    বালকের বাস

    মুনা চৌধুরী

    মনে আছে তুমি বলতে আমায়, 'I’m just a kid stuck in this body ' আর আমিও তোমায় বলতাম, 'So, you don’t want to grow up ?' তুমি মিষ্টি করে হাসতে, ভীষণ ভীষণ মিষ্টি করে। চিৎকার, নিষ্ঠূরতা, আর ঔদ্ধ্যেতের আগে যে তুমি ছিলে, সে তোমাতে ছিল এক বালকের বাস। যে বালকের ছিল মায়াভরা দুটি চোখ আর অবিনশ্বরের ছায়ায় গড়া মুখশ্রীর অক্ষয় স্থাপত্য।

    সেদিন সবাই বলছিলো বাঙালি পুরুষের বুকে নাকি বালকের বাস। সত্যিই তো আমার বাবার, ভাইয়ের, আর তোমার বুকেও দেখেছি বালকের বাস। ভেবে দেখো রবিঠাকুর, নেতাজি সুভাষবসু, সত্যজিৎ আর চে'গাভারার বুকেও ছিল বালকের বাস।

    তুমি কি এখনো সেই বালকের মতো পাগলাটে? এখনো কাজের ফাঁকে ফাঁকে শোনো ইন্দ্রনীলের গান? আগের মতো গলা ছেড়ে গাও, 'বধূ তোমায় করবো রাজা তরুতলে' আর আবৃত্তি করে যাও তোমার স্বর্গীয় দরাজ গলায় Morissey –

    “Nobody knows what human life is

    Why we come, why we go

    So why then do I know

    I will see you,

    I will see you in far off places?”

    আমি অবাক হয়ে দেখি, পৃথিবীটা চলছে সেই আগের মতোই - কোথাও থামাথামি নেই, চারপাশে আধপেটা শিশু, দিশেহারা বাবার অর্ধাহারে ছোটাছুটি, নীল আকাশের নিচে ঘরছাড়া হাজারো মানুষের হাহাকার, সন্তানের রক্তভেজা হিজাবে মা'র এলোমেলো বকে যাওয়া। ছেড়া সংসার,  লক্ষ মানুষের বেদনার্ত ভেসে থাকা আর ধ্বসে যাওয়া জনপদ।

    জানো, ওদের মাঝে মিশে গেছি এই ক্ষুদ্র আমি, আমার শোকগাথা আর চোখের নোনা জল .....

      

     http://www.alokrekha.com

    9 comments:

    1. রাহাত খানFebruary 20, 2022 at 4:38 PM

      মুনা চৌধুরীর কবিতা বালকের বাস পড়ে ভালো লাগলো। এটি ভিন্নধর্মী একটা কবিতা যা হৃদয় স্পর্শ করে। শুভ কামনা।

      ReplyDelete
    2. রায়হান সোবহানFebruary 20, 2022 at 4:52 PM

      মুনা চৌধুরীর বালকের বাস পড়ে ভালো লাগলো।এখানে অত্যন্ত সারল্যতার সাথে মানুষের ভেতরে বালকের অবস্থান প্রতিভাত হয়েছে। প্রতিটি শব্দ নিগুড় তত্ব বহন করে। আপনার প্রতি শুভেচ্ছা আরো ভালো লিখুন এই কামনা করি।

      ReplyDelete
      Replies
      1. পাঠক হিসেবে আপনার ভালোলাগাই আমার ক্ষুদ্র প্রচেষ্টার সার্থকতা। শুভেচ্ছা আপনাকেও।

        Delete
    3. মুনা চৌধুরীর সমীপে বলছি আমাদের ভেতর বালকের বাস তাই আমরা ভালোবাসতে জানি। আমাদের ভালোবাসা নির্মল। লেখার বিষয়বস্তু সুন্দর কিন্তু কবিতা হয়ে ওঠেনি। স্মৃতিরোমন্থন করা ভালো তাকে আঁকড়ে ধরে থাকলে মন ভালো হয় আবার ব্যথার কারণ হতে পারে।

      ReplyDelete
      Replies
      1. আপনার মূল্যবান মন্তব্য ও উপদেশের জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা। কবিতা হয়েছে অথবা স্মৃতিরোমন্থন- লেখাটা যাই হোক না কেন, সেটা পুরোপুরি কাল্পনিক যার সাথে আমার ব্যক্তিগত জীবনের কোনো মিল নেই। স্মৃতিরোমন্থন করে আঁকড়ে থাকার মতো হৃদয়সর্বস্ব কবি মানুষ আমি নই। আমি আইনের লোক যে কিছুটা লেখার 'চেষ্টা' করে মাত্র এবং যার লেখা আলোকরেখার মতো platform এ প্রকাশ করে সানজিদা রুমি আমাকে সম্মানিত করেছেন। আপনাকে অনেক অনেক ভালোবাসা।

        Delete
    4. স্মৃতিগাঁথা
      তবে একে কোনোভাবেই কবিতা বলা যায়না
      কবিতা বললে
      কবিতার চরিত্রহরণ হয়

      ReplyDelete
      Replies
      1. কবিতার চরিত্রহরণ কিভাবে হয় বুঝলাম না! কবিতা কি এতটাই ঠুনকো যে আমার মতো একজন খুব সাধারণ, স্বল্প মেধাসম্পন্ন মানুষ যে ভালোবেসে কিছু লিখতে চেষ্টা করে- তার লেখা, কবিতার মতো বিষয়কে একেবারে 'চরিত্রহরণ' করে ছেড়ে দেয়! Dear Anonymous আপনি কষ্ট করে আবারো মন্তব্য করেছেন, আপনাকে অনেক অনেক ভালোবাসা।

        Delete
      2. দুঃখিত আমার হয়তো চরিত্রহরণ কথাটা বলা ঠিক হয়নি
        অন্যভাবে বলা যেত
        আমি আপনার কাছে করজোড়ে ক্ষমা চাইছি মনোকষ্ট দেয়ার জন্য
        আমি আপনার লেখার একজন ভক্ত
        লেখাটি অপূর্ব
        কবিতা হিসাবে ঠিক নয় সে কথাটি বলতে যেয়ে কেন যেয়ে এমন বললাম?

        Delete

    অনেক অনেক ধন্যবাদ