আলোকের এই ঝর্নাধারায় ধুইয়ে দাও -আপনাকে এই লুকিয়ে-রাখা ধুলার ঢাকা ধুইয়ে দাও-যে জন আমার মাঝে জড়িয়ে আছে ঘুমের জালে..আজ এই সকালে ধীরে ধীরে তার কপালে..এই অরুণ আলোর সোনার-কাঠি ছুঁইয়ে দাও..আমার পরান-বীণায় ঘুমিয়ে আছে অমৃতগান-তার নাইকো বাণী নাইকো ছন্দ নাইকো তান..তারে আনন্দের এই জাগরণী ছুঁইয়ে দাও একজন অভিমানীর জন্যে! - সুনিকেত চৌধুরী ~ alokrekha আলোক রেখা
1) অতি দ্রুত বুঝতে চেষ্টা করো না, কারণ তাতে অনেক ভুল থেকে যায় -এডওয়ার্ড হল । 2) অবসর জীবন এবং অলসতাময় জীবন দুটো পৃথক জিনিস – বেনজামিন ফ্রাঙ্কলিন । 3) অভাব অভিযোগ এমন একটি সমস্যা যা অন্যের কাছে না বলাই ভালো – পিথাগোরাস । 4) আমাকে একটি শিক্ষিত মা দাও , আমি তোমাকে শিক্ষিত জাতি দেব- নেপোলিয়ন বোনাপার্ট । 5) আমরা জীবন থেকে শিক্ষা গ্রহন করি না বলে আমাদের শিক্ষা পরিপূর্ণ হয় না – শিলার । 6) উপার্জনের চেয়ে বিতরণের মাঝেই বেশী সুখ নিহিত – ষ্টিনা। 7) একজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি আরেকজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি কে জাগ্রত করতে পারে না- শেখ সাদী । 8) একজন দরিদ্র লোক যত বেশী নিশ্চিত , একজন রাজা তত বেশী উদ্বিগ্ন – জন মেরিটন। 9) একজন মহান ব্যাক্তির মতত্ব বোঝা যায় ছোট ব্যাক্তিদের সাথে তার ব্যবহার দেখে – কার্লাইন । 10) একজন মহিলা সুন্দর হওয়ার চেয়ে চরিত্রবান হওয়া বেশী প্রয়োজন – লং ফেলো। 11) কাজকে ভালবাসলে কাজের মধ্যে আনন্দ পাওয়া যায় – আলফ্রেড মার্শা
  • Pages

    লেখনীর সূত্রপাত শুরু এখান থেকে

    একজন অভিমানীর জন্যে! - সুনিকেত চৌধুরী

     একজন অভিমানীর জন্যে!
    - সুনিকেত চৌধুরী

    অন্যনাম অন্যকথা সাড়া না দেয়া সামনে না আসা
    আরো বহুবিধ ভাবে লুকিয়ে থাকার নাম অহংকার যদি বল
    তাহলে "সত্যম শিবম সুন্দরম" ছবির কথা
    মনে করিয়ে দেবো তোমায়, অভিমানী!
    অহংকার তো নয়, এর নাম ভয় !
    সামনে আসার ভয়, ভয় যদি হয় স্বপ্নভঙ্গ তোমার
    যদি বল, , আমিতো ভেবেছিলাম ...... না জানি কি!

    তবে আমাদের দৈনন্দিনতার মাঝে
    কিছু কিছু মৃন্ময়ী মন ছুঁয়ে যায় হৃদয়ের তন্ত্রী
    দিয়ে যায় আলো আর বাসনার তীব্রতা
    অনন্তকাল পুজোয় বসার !
     http://www.alokrekha.com

    14 comments:

    1. রুপা গাঙ্গুলীSeptember 2, 2019 at 5:58 PM

      কবি সুনিকেতের এ এক নতুন রূপ। দারুন কবিতা। অন্যনাম অন্যকথা সাড়া না দেয়া সামনে না আসা কিসের জন্য এই নির্বাসন ? কেবলই "সত্যম শিবম সুন্দরম" ছবির মত ভয় নাকি সামনে না আসার ছলনা।

      ReplyDelete
    2. রেহানা সুলতানাSeptember 2, 2019 at 6:07 PM

      কবি সুনিকেতের একজন অভিমানীর জন্যে! কবিতায় নিজের এক অনন্য রূপ অঙ্কন করেছেন। দারুন ভালো লাগার কবিতা।মৃন্ময়ী মন নাকি অংককারী হৃদয় কবিকে সামনে আস্তে বাধা দিচ্ছে? যা কবি ভয়ের নাম দিয়ে নিজেকে আড়াল করতে চাইছেন ? অনন্য কবিতা খুব ভালো লাগলো পড়ে।

      ReplyDelete
    3. রুহান সিদ্দিকীSeptember 2, 2019 at 6:22 PM

      কবি সুনিকেতের একজন অভিমানীর জন্যে! কবিতায় নিজেকে আড়ালে রাখতে চান প্রেয়সীর স্বপ্ন ভঙ্গের কারণে।"সত্যম শিবম সুন্দরম" ছবির নায়িকা তার অসুন্দর রূপের কারণে দূরে দূরে থাকতো। কবি সুনিকেত খুব সুন্দর করে সেই গল্পের সাথে নিজের সাথে তুলনা করে লিখেছেন এই কবিতা। অনেক অনেক শুভেচ্ছা কবি।

      ReplyDelete
    4. মিতা রহমানSeptember 2, 2019 at 6:25 PM

      কবি সুনিকেতের একজন অভিমানীর জন্যে! কবিতায় এক অনন্য রূপ অঙ্কন করেছেন। দারুন ভালো লাগার কবিতা।

      ReplyDelete
    5. দিলরুবা দেওয়ানSeptember 2, 2019 at 6:34 PM

      একটা জিনিস লক্ষ্য করলাম ,মানুষ যত শিক্ষা সংস্কৃতি তে
      উন্নত হয় , ধর্ম থেকে একটু দূরে সরে যায়। এর কারণ কি ?

      ReplyDelete
      Replies
      1. দিলরুবা দেওয়ান আপনার বক্তব্যের সাথে 'ধর্ম' থেকে দূরে থাকার বেপারটা এই কবিতার কমেন্ট সেকশন এ কেন বুঝলাম না।শিক্ষা সংস্কৃতি মানুষকে ধর্ম থেকে দূরে রাখে আপনাকে কে বললো? সুনিকেতের 'একজন অভিমানীর জন্যে' - কবিতার মধ্যেও কবি বলেছেন তিনি অনন্তকাল পুজোয় বসবেন কেননা তার প্রেম তাকে আলো আর বাসনার একটা অন্তহীন সময়ে নিয়ে যায়। কিছু মনে করবেন না, আপনার ধারণা ১০০% ভুল কেননা সুশিক্ষা মানুষকে সৃষ্টিকর্তার (আপনি তাকে যে নামেই ডাকেন না কেন ঈশ্বর, ভগবান, খোদা, নিরেশ্বর) কাছে নিয়ে যায় আর তাকে মুগ্দ্ধ করায় সৃষ্টিকর্তার উদারতায় আর তার রহমতের ভান্ডার এর। নিশ্চই সূরা রহমান এ পড়েছেন। আপনি রবিঠাকুরের বেক্তিগত চিঠিপত্র পড়লেই বুঝবেন সৃষ্টিকর্তার জন্য তার অপরিসীম ভালোবাসা সেসাথে নির্ভরতা কতটা ছিল। হাফিজ অফ সিরাজ, কোরানে হাফেজ ছিলেন।আত্তার, শামস, জিব্রান এবং অনেকে কতখানি শিক্ষিত ছিলেন আপনার কোনো ধারণাই নাই। দয়া করে আপনার এই ধারণাটা পাল্টান। আরো পড়েন দেখবেন আপনার ভুল ভেঙে গেছে।

        Delete
    6. আহসান হাবিবSeptember 2, 2019 at 6:45 PM

      কবি সুনিকেতের একজন অভিমানীর জন্যে! কবিতায় দৈনন্দিনতার মাঝে দিয়ে যায় আলো আর বাসনার তীব্রতা অনন্তকাল পুজোয় বসার। কি অপরূপ রূপে অংকিত করেছেন। খুব ভালো লাগলো কবিতাটা পড়ে। অনেক ভালোভাসা কবি।

      ReplyDelete
    7. মোহন সিরাজিSeptember 2, 2019 at 6:58 PM

      কবি সুনিকেতের একজন অভিমানীর জন্যে! কবিতা পরে খুব ভালো লাগলো। সাধারণ সহজ কথায় কবি অনবদ্য উচ্চ মার্গের কবিতা। এখানে কবি লোকচক্ষুর আড়ালে থাকতে চান। এটা কবি হৃদয়ের সাধনা। শুধু তার পংক্তিমালা দিয়ে আমাদের জন্য সুনিপুন কবিতা গড়বেন।

      ReplyDelete
    8. শিখা সেন গুপ্তাSeptember 2, 2019 at 7:05 PM

      কবি সুনিকেতের একজন অভিমানীর জন্যে! কবিতায় বাহ্যিক দিক থেকে অন্তরের কথাই উঠে এসেছে। অসুন্দরের মাঝে হৃদয় তন্ত্রীর যে অপরূপ রূপ আছে তাই নিয়েই কবি আমাদের সামনে পরিবেশন করেন। খুব ভালো লাগলো। অনবদ্য উচ্চ মানের কবিতা।

      ReplyDelete
    9. নুসরাত আহমেদSeptember 2, 2019 at 7:15 PM

      কবি সুনিকেতের একজন অভিমানীর জন্যে! কবিতা প্রাণকাড়া কি ভাব।,দৃঢ় বক্তব্য আর শব্দ দিয়ে ভাবার প্রয়োগ।দারুন কবিতা ,অনেক শুভেচ্ছা কবি !

      ReplyDelete
    10. মৃন্ময়ীSeptember 2, 2019 at 7:30 PM

      কবি সুনিকেতের একজন অভিমানীর জন্যে! কবিতা্য কবি মোটেও ভালো কথা লেখেননি। কবির কবিতা অন্তরের কথা বলে। আর কবি কিনা লোকচক্ষুর আড়ালে থাকতে চান। আমি কবি সুনিকেতকে ভালোবাসি ভালবাসি তার লেখা ভাব ও অভিব্যক্তিকে। তার বাহ্যিক খোলসকে নয়। আর যাকে ভালোবাসা যায় তাকে সব দিন থেকে ভালোবাসা যায়। হোক সে অসুন্দর।আর ভয় কিসের কবি মৃন্ময়ী মন যার। অনেক ভালোবাসা রইলো আপনার জন্য। মোটেও আর এমন কথা লিখবেন না। বড্ড কষ্ট হয় আমার। ভালো থাকবেন তো ? আর এমন করে কথা বলবেন না যেন। কথা দিন।

      ReplyDelete
    11. চমৎকার রচনাশৈলী ও স্বতন্ত্র ভাব ও ভাষা প্রয়োগে চমৎকার একটা কবিতা ।কাব্যিক ছন্দোবদ্ধ দারুন কবিতা। অনেক শুভেচ্ছা কবি। আপনি ভালো থাকুন আরো লিখুন !

      ReplyDelete
    12. রায়হান খানSeptember 2, 2019 at 8:39 PM

      কবি সুনিকেতের একজন অভিমানীর জন্যে! কবিতা্য চমৎকার রচনাশৈলী ও স্বতন্ত্র ভাব ও ভাষা প্রয়োগে চমৎকার একটা কবিতা ।কাব্যিক ছন্দোবদ্ধ দারুন কবিতা। অনেক শুভেচ্ছা কবি। আপনি ভালো থাকুন আরো লিখুন !প্রাণকাড়া কি ভাব।,দৃঢ় বক্তব্য আর শব্দ দিয়ে ভাবার প্রয়োগ।দারুন কবিতা ,অনেক শুভেচ্ছা কবি

      ReplyDelete
    13. "দিয়ে যায় আলো আর বাসনার তীব্রতা/অনন্তকাল পুজোয় বসার" - কিছু কথা পড়ার পরে অনুরণন থেকে যায়. এই কবিতার 'আলো আর বাসনা'র তীব্রতা নিয়ে যায় কবিকে এমন কোনো কালে যে কালের কোনো শেষ নেই. আলো আর বাসনা এই দুই এর অবস্থান আমাদের জীবনে থাকে বলেই আমরা বেঁচে থাকি. ধন্যবাদ কবি, আরো সুন্দর সুন্দর কবিতা যেন অনুরণন হয়ে আমাদের মনে রেশ রেখে যায় এই কামনা করি.

      ReplyDelete

    অনেক অনেক ধন্যবাদ