আলোকের এই ঝর্নাধারায় ধুইয়ে দাও -আপনাকে এই লুকিয়ে-রাখা ধুলার ঢাকা ধুইয়ে দাও-যে জন আমার মাঝে জড়িয়ে আছে ঘুমের জালে..আজ এই সকালে ধীরে ধীরে তার কপালে..এই অরুণ আলোর সোনার-কাঠি ছুঁইয়ে দাও..আমার পরান-বীণায় ঘুমিয়ে আছে অমৃতগান-তার নাইকো বাণী নাইকো ছন্দ নাইকো তান..তারে আনন্দের এই জাগরণী ছুঁইয়ে দাও মালতীবালা বালিকা বিদ্যালয় – জয় গোস্বামী ~ alokrekha আলোক রেখা
1) অতি দ্রুত বুঝতে চেষ্টা করো না, কারণ তাতে অনেক ভুল থেকে যায় -এডওয়ার্ড হল । 2) অবসর জীবন এবং অলসতাময় জীবন দুটো পৃথক জিনিস – বেনজামিন ফ্রাঙ্কলিন । 3) অভাব অভিযোগ এমন একটি সমস্যা যা অন্যের কাছে না বলাই ভালো – পিথাগোরাস । 4) আমাকে একটি শিক্ষিত মা দাও , আমি তোমাকে শিক্ষিত জাতি দেব- নেপোলিয়ন বোনাপার্ট । 5) আমরা জীবন থেকে শিক্ষা গ্রহন করি না বলে আমাদের শিক্ষা পরিপূর্ণ হয় না – শিলার । 6) উপার্জনের চেয়ে বিতরণের মাঝেই বেশী সুখ নিহিত – ষ্টিনা। 7) একজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি আরেকজন ঘুমন্ত ব্যাক্তি কে জাগ্রত করতে পারে না- শেখ সাদী । 8) একজন দরিদ্র লোক যত বেশী নিশ্চিত , একজন রাজা তত বেশী উদ্বিগ্ন – জন মেরিটন। 9) একজন মহান ব্যাক্তির মতত্ব বোঝা যায় ছোট ব্যাক্তিদের সাথে তার ব্যবহার দেখে – কার্লাইন । 10) একজন মহিলা সুন্দর হওয়ার চেয়ে চরিত্রবান হওয়া বেশী প্রয়োজন – লং ফেলো। 11) কাজকে ভালবাসলে কাজের মধ্যে আনন্দ পাওয়া যায় – আলফ্রেড মার্শা
  • Pages

    লেখনীর সূত্রপাত শুরু এখান থেকে

    মালতীবালা বালিকা বিদ্যালয় – জয় গোস্বামী


    মালতীবালা বালিকা বিদ্যালয় – জয় গোস্বামী

    বেণীমাধব, বেণীমাধব, তোমার বাড়ি যাবো
    বেণীমাধব, তুমি কি আর আমার কথা ভাবো?
    বেণীমাধব, মোহনবাঁশি তমাল তরুমূলে
    বাজিয়েছিলে, আমি তখন মালতী ইস্কুলে
    ডেস্কে বসে অঙ্ক করি, ছোট্ট ক্লাসঘর
    বাইরে দিদিমণির পাশে দিদিমণির বর
    আমি তখন নবম শ্রেণী, আমি তখন শাড়ি
    আলাপ হলো, বেণীমাধব, সুলেখাদের বাড়ি
    বেণীমাধব, বেণীমাধব, লেখাপড়ায় ভালো
    শহর থেকে বেড়াতে এলে, আমার রঙ কালো
    তোমায় দেখে এক দৌড়ে পালিয়ে গেছি ঘরে
    বেণীমাধব, আমার বাবা দোকানে কাজ করে
    কুঞ্জে অলি গুঞ্জে তবু, ফুটেছে মঞ্জরী
    সন্ধেবেলা পড়তে বসে অঙ্কে ভুল করি
    আমি তখন নবম শ্রেণী, আমি তখন ষোল
    ব্রীজের ধারে, বেণীমাধব, লুকিয়ে দেখা হলো
    বেণীমাধব, বেণীমাধব, এতদিনের পরে
    সত্যি বলো, সে সব কথা এখনো মনে পড়ে?
    সে সব কথা বলেছো তুমি তোমার প্রেমিকাকে?
    আমি কেবল একটি দিন তোমার পাশে তাকে
    দেখেছিলাম আলোর নীচে; অপূর্ব সে আলো!
    স্বীকার করি, দুজনকেই মানিয়েছিল ভালো
    জুড়িয়ে দিলো চোখ আমার, পুড়িয়ে দিলো চেখ
    বাড়িতে এসে বলেছিলাম, ওদের ভালো হোক।
    রাতে এখন ঘুমাতে যাই একতলার ঘরে
    মেঝের উপর বিছানা পাতা, জ্যো‍‍‌ৎস্না এসে পড়ে
    আমার পরে যে বোন ছিলো চোরাপথের বাঁকে
    মিলিয়ে গেছে, জানি না আজ কার সঙ্গে থাকে
    আজ জুটেছে, কাল কী হবে? – কালের ঘরে শনি
    আমি এখন এই পাড়ায় সেলাই দিদিমণি
    তবু আগুন, বেণীমাধব, আগুন জ্বলে কই?
    কেমন হবে, আমিও যদি নষ্ট মেয়ে হই?

     http://www.alokrekha.com

    1 comments:

    1. চিত্রা বাড়ূইNovember 14, 2019 at 3:44 PM

      জয় গোস্বামীর "মালতীবালা বালিকা বিদ্যালয় –" কবিতা আমার বড় প্রিয়। আলোকরেখা পড়তে ভালো লাগে এখানে আমরা সব পাই। শুধু নুতন কবিদের লেখা নয়। জনপ্রিয় কবিতা গুলোও পড়তে পারি। আলোকরেখার এই উদ্যোগকে আমরা সাধুবাদ জানাই।শুভ কামনা আলোকরেখার জন্য।

      ReplyDelete

    অনেক অনেক ধন্যবাদ